1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

সন্ত্রাসী জনপদের নাম খেদাপাড়া – মণিরামপুরের খেদাপাড়া উপনির্বাচন নিয়ে শঙ্কা – ৩/০

  • আপডেট: সোমবার, ৪ মে, ২০১৫
  • ৫৭৭ দেখেছেন

যশোরের অন্যতম সন্ত্রাসী জনপদের নাম মণিরামপুর উপজেলার খেদাপাড়া ইউনিয়ন। দু’যুগ ধরে এই ইউনিয়নে একাধিক সন্ত্রাসী বাহিনীর উত্থান ঘটেছে। ইউনিয়নের নিরীহ জনগণ থাকেন আতংকের মাঝে। কৃষকলীগ নেতা শফি কামাল, যুবলীগ কর্মী শাহিন, যুবদল নেতা শীর্ষ সন্ত্রাসী মেসবাউল রহমান চন্টুসহ অনেকেই খুন হয়েছেন গত দু’ বছরের মধ্যে। সম্প্রতি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান ওমর ফারুকের মৃত্যু হয়। পদটি শূন্য হওয়ায় চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন হতে যাচ্ছে আগামী ২৫ মে। ইউনিয়নে ৯টি কেন্দ্রে ১৯হাজার ৪শ’ ভোটার তাদের ভোটারাধিকারের মাধ্যমে নির্বাচিত করবেন তাদের প্রতিনিধি। স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, বিএনপি জামায়াত সমর্থিত ভোটার যেদিকে ভোট দেবেন তারাই নির্বাচিত হবেন। আর এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আবারও ভাবিয়ে তুলছেন জনগণকে। তবে এ উপ-নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের দু’গ্রুপ প্রতিদ্বন্দিতা করবেন এমনটায় ভাবছেন ইউনিয়নবাসি। তবে বেশির ভাগ ভোটারদের ভাবনা উপকার করতে পারবেন না কিন্তু ক্ষতিও করবেন না, এমনNira21433 ব্যক্তিকেই নির্বাচিত করার অপেক্ষায় আছেন তারা। সংশ্লি¬ষ্ট সূত্র জানায়, আজ সোমবার প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র দাখিলের শেষ দিন। আওয়ামী লীগের মুজিবর রহমান, এরশাদ আলী, আব্দুল আলীম জিন্নাহ, চরমোনাই পীর দলীয় মিজানুর রহমান ও বিএনপি ঘরোনার রবিউল ইসলাম রবি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। তবে বিএনপি দলীয় জোট এ নির্বাচনে প্রার্থী দিয়ে অংশ নেবেন না বলে নিশ্চিত করেছেন ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মুনসুর আলী। আওয়ামী লীগের তিন নেতা মনোনয়ন সংগ্রহ করলেও দলীয় প্রার্থী কে হচ্ছেন তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। মুজিবর রহমান এবং এরশাদ আলী এ দুজনের মধ্য থেকেই একজনকে দলীয় প্রার্থী ঘোষনা করা হবে এমনই আভাস মিলেছে দলীয় একাধিক সূত্র থেকে। তবে ইউনিয়নের নির্বাচন নিয়ে নতুন করে সংকট দেখা দিয়েছে সাধারণ জনগণের মাঝে। ৯০ এর দশকের খেদাপাড়া একটি সন্ত্রাসী বাহিনী গড়ে ওঠে। যে বাহিনীকে নিয়েই কেবল খেদাপাড়া নয়, দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের মানুষ তটস্থ ছিলেন। ৯২ সালে এ বাহিনীর সাথে খেদাপাড়া বাজারে পুলিশের টানা তিন ঘন্টা বন্দুক যুদ্ধের ঘটনাও ঘটেছিলো। ঐ ঘটনার ফারুক নামে বাহিনীর এক সদস্য গুলিতে নিহত হয়েছিল। এঘটনার পর এই ইউনিয়নে একাধিক বাহিনীর উত্থান ঘটে চলেছে। উপজেলা কৃষকলীগ নেতা শফি কামাল দিন দুপুরে খুন হন গরীবপুর চাঁদপুর মাদ্রাসার সামনে। সংসদ সদস্য প্রার্থী খাঁন টিপু সুলতানের নির্বাচনী প্রচার কাজে গেলে একদল দূর্বৃত্ত শফি কামালকে কুপিয়ে হত্যা করে। যুবলীগ কর্মী শাহিন কে দিন দুপুরে কুপিয়ে খুন করা হয় ২০ জানুয়ারি। কাশিপুর গ্রামের বাড়ির সামনে দুপুর আড়াইটার দিকে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে ফেলে রেখে যায়। দিন দুপুরে শফি কামাল ও শাহিন খুনের ঘটনায় নতুন করে আতংক ছড়িয়ে পড়ে সাধারণ মানুষের মাঝে। শফি কামাল খুনের ঘটনার পর চাঁদপুর মাঝিয়ালী এলাকায় গরু ছাগল পর্যন্ত লুটপাট চালানো হয় এমন অভিযোগ রয়েছে। স্থানীয় চেয়ারম্যান ওমর ফারুক শফি কামাল হত্যাকান্ডে প্রধান আসামি ছিলেন। ওমর ফারুক চলতি বছরে ২৩ ফেব্রুয়ারি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। কাশিপুর গ্রামের ইউ,পি সদস্য যুবদল নেতা মেসবাউল রহমান চন্টু মুর্তীয়মান আতংক হয়ে ওঠে। তার নাম শুনলেই নারী-পুরুষ আতকে উঠতেন। ১৯ মার্চ খুন হয়ে যায় মেসবাউল রহমান চন্টু। প্রায় এক দশক কাল সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করেছিল চন্টু। ভোট কেন্দ্রে হামলাসহ চাঁদাবাজি অপহরণ অনেক ঘটনায় সিদ্ধহস্ত ছিলো তার। তার খুনের পর অন্তত কিছুদিন ইউনিয়নের নিরবতা থাকলেও উপ-নিবাচন নিয়ে পুনরায় শংকিত হচ্ছেন জনগণ। খেদাপাড়া ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে ইউনিয়নব্যাপী একদিকে আলোচনা অন্যদিকে শংকা চলছে। তবে নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত পাঁচ প্রার্থী বহাল থাকলেও খেদাপাড়া মুজিবর এবং হেলাঞ্চী গ্রামের এরশাদ আলীকে নিয়েই আলোচনায় প্রাধান্য পাচ্ছে। বেশির ভাগ জনগনের ভাষায় গত বছরে ১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত এ আসনের সংসদ নির্বাচন আদলেই খেদাপাড়া ইউনিয়ন নির্বাচন হওয়ার সম্ভবনাটা দেখছেন জনগণ। ওই নির্বাচনে টিপু হঠাও শ্লোগান দিয়ে জনগণ ভোট দিয়ে সতন্ত্র প্রার্থী স্বপন ভট্টাচার্য্য কে নির্বাচিত করেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিএনপি ও জামায়াত দলীয় একাধিক নেতা দাবি করেন, কোন সন্ত্রাসীকে ভোট দেবে না জনগণ। উপকার না করতে পারে, তবে ক্ষতি করবেনা এমন ব্যক্তিকে নির্বাচিত করবেন জনগণ। তবে খেদাপাড়া ভোট কেন্দ্র টি নিয়ে সকল শ্রেণীর জনগণ আশংকা প্রকাশ করেছেন।–সূত্র.স্পদন


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022