1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল

মণিরামপুর খড়িঞ্চি উত্তরা ফিস ফিডের পণ্য বোঝাই ট্রাক খাদে

  • আপডেট: সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ৬৩২ দেখেছেন

মণিরামপুরের রাজগঞ্জ মোড় টু খেদাপাড়া সড়কে খড়িঞ্চি উত্তরা ফিস ফিডের ধারন ক্ষমতার অতিরিক্ত পণ্যবোঝাই ট্রাক ( যশোর-ট- ১১২৫৯৪) নিয়ন্ত্রন হারিয়ে উল্টে রাস্তা ছিড়ে খাদে পড়েছে। এতে হতাহতের কোন ঘটনা না ঘটলেও রাস্তা ভেঙ্গে চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। গত রবিবার সন্ধ্যার পূর্বে কোম্পানির নিকটবর্তী খড়িঞ্চি ব্রিজ সংলগ্ন স্থানে এঘটনা ঘটে। এসময় ট্রাকটিতে ২২ টন ফিড লোড দেওয়া ছিলো বলে ট্রাকের হেলপার সোহেল জানিয়েছে। শুধু এটিই নয় গত একমাসে ওই সড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে কোম্পানির পণ্যবোঝাই একটি কার্ভাড ভ্যানসহ আরো ২ টি ট্রাক উল্টেছে। পরপর এত বড় কয়েকটি ঘটনা ঘটে গেলেও কোম্পানি কর্তৃপক্ষ সহ সরকার সচেতন না হওয়ায় জনমনে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। রাস্তা সংস্কার না করে খালাসকৃত একটি মালও ঘটনাস্থল থেকে সরানো যাবে না- এ দাবিতে সোমবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় এই রিপোর্ট লেখাপর্যন্ত জনগনকে বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে। পাশাপাশি স্থানীয় জনসাধারনসহ জনপ্রতিনিধিরা দ্রুত কোম্পানির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন। স্থানীয় একাধিক সুত্র জানিয়েছে,২০১২ সালে উপজেলার খেদাপাড়া খড়িঞ্চি এলাকায় উত্তরা ফুড এন্ড ফিস ফিড নামের একটি বেসরকারী কোম্পানি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এদিকে চলতি বছরের শুরুর দিকে রাজগঞ্জ মোড় টু খেদাপাড়া সড়কটি সংস্কার করে সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তর।fa fs

উপজেলার ৮/১০ টি গুরুত্বপূর্ণ সড়কের মধ্যে সব চাইতে চলাচলের উপযোগী ছিল একমাত্র এই সড়কটি। স্থানীয়দের দেয়া তথ্যমতে,রাস্তাটির ধারণ ক্ষমতা মাত্র ৫/৭ টন। কিন্তু গত কয়েকমাস ধরে কোম্পানির পন্য আনা নেয়ার কাজে প্রতিদিনই ২০/২৫ টি ট্রাক রাস্তার ধারন ক্ষমতার কয়েকগুন বেশি পন্য নিয়ে এই সড়কটিতে চলাচল করার ফলে রাস্তাটি দুই পাশ্বে তলিয়ে গিয়ে মাঝখানে উচুঁ হয়ে গেছে। আবার কোন কোন স্থানে দেখা দিয়েছে বড় বড় ভাঙ্গনের। যার ফলে প্রতিনিয়তই ঘটছে ছোটখাটো কোন না কোন দূর্ঘটনা।  সূত্রটি আরো জানিয়েছে,গত এক মাসের মধ্যে পরপর পণ্যবোঝাই একটি কাভার্ড ভ্যানসহ ৪ টি ট্রাক উল্টে গেছে। পরপর কয়েকটি ঘটনা ঘটার পরেও সচেতন হয়নি কোম্পানি কর্তৃপক্ষ। এমনকি এর কোন খবরই রাখেননা সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরও। ফলে স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য শহিদ,খড়িঞ্চি এলাকার আ’লীগের ওয়ার্ড সভাপতি হাবিবুর রহমান ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য কোম্পানির এহেন উদাসিনতায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, ‘প্রতিদিন ওভার লোড নিয়ে প্রায় ২০/২৫ টি ট্রাক এই পথে চলাচল করে। অথচ রাস্তার ধারণ ক্ষমতা মাত্র ৭ টন। যখন গাড়িগুলো যাতায়াত করে রাস্তার দুই পাশ্ব যেন ঢেউ খেলতে থাকে। তারা আরো জানায়,আমরা কয়েকদিন বাধা দিয়েছি। কিন্তু তাতে কোন কাজ হয়নি।’ তবে ঘটনাস্থলে উপস্থিত উত্তরা ফিডের লজিষ্ট্রিক এজিএম একেএস এমদাদুল করিম এব্যাপারে মুখ খোলেননি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল হাসান জানান, ‘নতুন আসাতে বিষয়টি এখনো আমার কানে আসেনি। তাছাড়া বর্তমানে আমি ছুটিতে আছি। এসেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় বসব।’


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022