1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাবের ভার্চুয়াল সাধারণ সভা অনুিষ্ঠত : অভিষেকের প্রস্তুতি হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা

মণিরামপুরের রোজিপুর কেএমএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গোপনে শিক্ষক নিয়োগের অভিযোগ

  • আপডেট: শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ৪৫৩ দেখেছেন
মণিরামপুরের রোজিপুর কেএমএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গোপনে শিক্ষক নিয়োগের অভিযোগ
মণিরামপুরের রোজিপুর কেএমএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গোপনে শিক্ষক নিয়োগের অভিযোগ

যশোরের মণিরামপুর উপজেলার রোজিপুর কেএমএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কম্পিউটার শিক্ষক পদে গোপনে নিয়োগ বোর্ড করার অভিযোগ উঠেছে। রবিবার মণিরামপুর সরকারী বালক/বালিকা বিদ্যালয়ে এই বোর্ড অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে।সূত্র জানায়, রোজিপুর কেএমএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কম্পিউটার শিক্ষক পদে বিগত ২০১১ সালের ৩০ জুলাই হরিচাঁদ রায় নামে একজনকে নিয়োগ দেয়া হয়। কিন্তু তার শিক্ষক নিবন্ধন পত্র জাল হওয়ায় স্কুল কর্তৃপক্ষ তার নাম এমপিওভুক্ত করেননি। একই পদে ৪ বছর পর ফের পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে শিক্ষক নিয়োগ করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে ওই শিক্ষকের পদ শূন্য না করে তাকে পুনরায় গোপনে নিয়োগ দেয়ার জন্য প্রধান শিক্ষক এই পাতানো নিয়োগ বোর্ড করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। সূত্র জানিয়েছে, এই পদের নিয়োগ পাওয়ার জন্য ৩ জন মহিলা ও ৪ জন পুরুষ প্রার্থী আবেদন করেছেন। ওই শিক্ষককে নেয়ার জন্য প্রধান শিক্ষক ৩ জন মহিলা প্রার্থীর আবেদন গ্রহণ না করে শুধুমাত্র পুরুষ প্রার্থীদের ইন্টারভিউ কার্ড দিয়ে পাতানো এই নিয়োগ বোর্ড করছেন। এ কারণে এই নিয়োগ বোর্ড বাতিল করার জন্য মহিলা প্রার্থী পরিণীতা সরকার, স্বরলা রাণী মন্ডল ও মিনি বিশ্বাস বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেছেন। তাদের দাবি স্থানীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, প্রেসক্লাব ও থানা অফিসার ইনচার্জ বরাবর অভিযোগ দিয়েছে।  সূত্র মতে, এই স্কুলের কম্পিউটার শিক্ষক হরিচাঁদ রায়ের জাল-জালিয়াতির বিষয়টি প্রধান শিক্ষক নূর মোহম্মদ সরদার গোপন করে ৪ বছরের মধ্যে তার সনদপত্র সঠিক করে তাকে পুনরায় স্বপদে নিয়োগ দেয়ার জন্য ব্যাপক ততপরতা চালাচ্ছেন। এ জন্য তিনি হরিচাঁদ রায়ের নিকট হতে মোটা অংকের টাকা নিয়েছেন বলে স্থানীয়ভাবে জোরালো গুঞ্জন আছে। এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক নূর মোহম্মদের ০১৯৩৬০১১৫৫৩ নম্বরে শনিবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে বারংবার ফোন করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। ফলে তার এব্যাপারে মন্তব্য পাওয়া যায়নি। 


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022