1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাবের ভার্চুয়াল সাধারণ সভা অনুিষ্ঠত : অভিষেকের প্রস্তুতি হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা

মণিরামপুরে বাল্য বিয়ের অভিযোগে কলেজ ছাত্রীকে শ্বশুরবাড়ি থেকে উদ্ধার

  • আপডেট: সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ৬১১ দেখেছেন
মণিরামপুরে বাল্য বিয়ের অভিযোগে কলেজ ছাত্রীকে শ্বশুরবাড়ি থেকে উদ্ধার
মণিরামপুরে বাল্য বিয়ের অভিযোগে কলেজ ছাত্রীকে শ্বশুরবাড়ি থেকে উদ্ধার

বাল্য বিয়ের অভিযোগে বিয়ের একদিন পর মণিরামপুরে কলেজ পড়ুয়া ১৬ বছর বয়সি এক ছাত্রীকে শ্বশুরালয় থেকে উদ্ধার করেছে উপজেলা প্রশাসন। তবে স্বামী-শ্বশুর এমনকি মেয়ের পিতাকে না পাওয়ায় কাউকে কোন প্রকার শাস্তি না দিয়েই শর্ত আরোপ করে কলেজ ছাত্রীকে মায়ের জিম্মায় দিল প্রশাসন। এ ঘটনায় এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। 
স্থানীয় সূত্রমতে, উপজেলার হরেরগাতী গ্রামের আ.সাত্তারের ছেলে দেশের প্রথম শ্রেণীর নাগরিক শামসুজ্জামান সুমনের সাথে পৌর শহরের হাকোবা গ্রামের ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমানের একমাত্র মেয়ে একাদশ শ্রেণীতে পড়ুয়া করিমন (ছদ্দনাম) নামের অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েটির গোপনে বিয়ে হয়। গত শণিবার রাত ১ টার দিকে কুয়াদায় নানার বাড়িতে আটকে রেখে জোর করে করিমনের অনিচ্ছায় তাকে বিয়ে দেন স্বজনরা। বিয়ের পর রাতেই নব বধূকে সাথে নিয়ে নিজ গৃহে ফেরেন বিএসসি ইঞ্জিনিয়ার সুমন। আশা ছিল ছুটি কাটিয়ে স্ত্রীকে নিয়ে নিজ কর্মস্থল নরসিংন্দিতে ফিরবেন তিনি। কিন্তু সুমনের সে আশার গুড়ে বালি। মাত্র ১৬ বছরের অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়ের বিয়ে হয়েছে মর্মে খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন পুলিশের সহযোগীতায় মেয়েটিকে রবিবার সন্ধ্যায় সুমনের বাড়ি হরেরগাতী থেকে উদ্ধার করে। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যান আ.সাত্তার ও তার ছেলে সুমন। এমনকি মেয়েটির পিতা হাফিজুরকে খবর দেয়া হলে ভয়ে সেও পালিয়ে যায়। ফলে জোরাল কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি উপজেলা প্রশাসন। পূর্ণবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে নিজেদের হেফাজতে রাখতে হবে এবং সুমন তার স্ত্রীর সাথে স্বাক্ষাত করতে পারবে না মর্মে শর্ত দিয়ে রোববার রাত ৮ টার দিকে মেয়েটিকে তার মায়ের হাতে তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুজ্জামান জানান,সুমন ও অভিভাবক পক্ষের কাউকে না পেয়ে শর্ত সাপেক্ষে মেয়েটিকে তার মায়ের হাতে তুলে দিয়েছি।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022