1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

যশোরে পুলিশের রাইফেলের আঘাতে মনিরামপুরের এক মটরসাইকেল আরোহী আহত

  • আপডেট: রবিবার, ৮ নভেম্বর, ২০১৫
  • ৫৫১ দেখেছেন
যশোরে পুলিশের রাইফেলের আঘাতে মনিরামপুরের এক মটরসাইকেল আরোহী আহত

 রোববার সন্ধ্যায় যশোর শহরের শংকরপুর মুরগির ফার্ম এলাকায় আবু সাঈদ (৩০) নামে এক যুবকের মাথায় রাইফেলের বাট দিয়ে আঘাত করেছে পুলিশ। এতে সে রক্তাক্ত জখম হয়েছে। গুরুতর অবস্থায় তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে যশোর মণিরামপুরের রাজগঞ্জ হানুয়ার এলাকার লুতফর রহমান মুন্সির ছেলে। এ ঘটনায় উত্তেজিত জনতা পুলিশকে অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে আওয়ামী লীগের স্থানীয় এক নেতা জনতাকে আশ্বস্ত এবং জনরোষ থেকে পুলিশকে উদ্ধার করেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যা ৬ টার দিকে যশোর কোতয়ালী থানার এএসআই লিটন সরদার এবং দুজন পুলিশ কনস্টেবল ও দুজন আনসার সদস্য শহরের শংকরপুরস্থ সরকারি মুরগির ফামের গেটের সামনে চেকপোস্ট বসিয়ে যানবাহন চেক করছিলেন। এ সময় দুজন মটরসাইকেলে শহর থেকে শংকরপুরের দিকে যাচ্ছিলেন। পুলিশের একজন সদস্য মটরসাইকেলটিকে সিগনাল দেয়। কিন্তু তারা না থামিয়ে চলে যাওয়ায় চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ কনস্টেবল রোকন যার নাম্বার(নং-২৯৩৭৪) মটরসাইকেলের আরোহী আবু সাঈদকে রাইফেলের বাট দিয়ে আঘাত করেন। এতে তিনি রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে যান। পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর অবস্থায় তাকে ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। স্থানীয় সূত্রে আরো জানাযায়, ঘটনার পরপরই উত্তেজিত লোকজন পুলিশ সদস্যদের ঘিরে রাখে। পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাবে ভেবে স্থানীয় এক নেতা পুলিশ সুপার ও কোতয়ালী থানার ওসিকে বিষয়টি অবহিত করেন। খবর পেয়ে কোতয়ালী থানার ওসি শিকদার আককাছ আলী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেয়। এএসআই লিটন হোসেন বলেন, ‘সিগনাল দেয়া হলেও তারা থামেনি। মটরসাইকেল চালক পালিয়ে গেছে। তার কাছে অস্ত্র-গুলি আছে বলে ধারণা করছি। রাইফেলের আঘাতে নয়, সাঈদ মটরসাইকেল থেকে পড়ে আহত হয়েছেন। কোতয়ালী থানার ওসি শিকদার আকাছ আলী জানান, এটা একটি দুর্ঘটনা। প্রকৃতপক্ষে কী ঘটেছিল তা সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না। তদন্ত করে যদি কেউ দায়ী হয় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022