1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

মণিরামপুরে মুক্তিপণের দাবীতে শিশুপুত্রসহ গৃহবধূকে অপহরণ করেছে দূর্বৃত্তরা

  • আপডেট: রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৫
  • ৫৮০ দেখেছেন

মণিরামপুরে শিশুসহ শেফালী (২৪) নামের এক গৃহবধূ বাপের বাড়ি যাবার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হলেও গত ৭ দিন যাবত নিখোঁজ রয়েছে। মুঠোফোনে লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে অজ্ঞাত নম্বর থেকে বার বার বাড়িতে ফোন করাই পরিবারের ধারনা শেফালীসহ তার শিশুপুত্রকে অপহরণ করেছে দূর্বৃত্তরা। গত ২৩ নভেম্বর শেফালীসহ তার শিশুপুত্রকে নিয়ে বাপের বাড়ী যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ী থেকে বের হলে পথিমধ্যে তাকে দূর্বৃত্তরা অপহরণ করেছে বলে ধারনা করছে পরিবারের লোকজন। এ ব্যাপারে মণিরামপুর থানায় সাধারন ডায়েরী করা হয়েছে। শেফালীর পিতা ফরিদ উদ্দীন গাজী জানান, ৬ বছর পূর্বে হালসা গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে রুবেলের সাথে শেফালীর পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে মেয়ে-জামাই সুখেই তাদের দাম্পত্য জীবন অতিবাহিত করে আসছিল। তাদের আবু হুরাইরা নামের ৩ বছরের পুত্র সন্তান রয়েছে। শেফালীর স্বামী রুবেল জানায়, প্রতিদিনের মতো ইটভাটাই কাজ করতে গেলে স্ত্রী শেফালী তাকে জানিয়ে বাপের বাড়িতে যায়। এরপর সন্ধ্যায় খোঁজ নিয়ে জানতে পারে শেফালী তার পিতার বাড়ি মশ্মিমনগর গ্রামে যায়নি। এরপর আত্মীয় বাড়িসহ সম্ভাব্য সব স্থানে খোঁজ-খবর নিয়ে শেফালীসহ তার শিশু সন্তানের সন্ধান মেলেনি। পরদিন ২৪ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ০১৯১৫৭০৪৩৮৯ নম্বরধারী এক অজ্ঞাত ব্যক্তি শ্বশুরের মুঠোফোনে ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে এবং উক্ত টাকা না দিলে তার মেয়ে ও নাতী ছেলেকে হত্যা করা হবে বলে হুমকি প্রদান করে। এরপর শেফালীর পিতা ফরিদ গাজী ২৫ নভেম্বর মুঠোফোনে হুমকি প্রদানকারী ওই নম্বরধারী অজ্ঞাত ব্যক্তির নামে মণিরামপুর থানায় সাধারন ডায়েরী করে। যার জিডি নম্বর ১১৭০। শেফালীকেও তার পিতার সাথে ওই অজ্ঞাত নম্বর দিয়ে কথা বলিয়েছে অপহরণকারীরা। এসময় শেফালী কান্নাকাটি করে পিতাকে বলেছে কিভাবে এখানে এসেছে সে কিছুই জানেনা। একই সাথে শিশু পুত্র আবু হুরাইরা তার কাছে নেই বলে জানায়। জিডিতে ওই নম্বরধারী অজ্ঞাত ব্যক্তির সন্ধানে মণিরামপুর থানা পুলিশ কাজ করছে বলে জানায় তদন্তকারী কর্মকর্তা এএসআই সেলিম। এএসআই সেলিম আরো জানান, ওই নম্বর দিয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তির সাথে কথা হয়েছে, কথা (মুখের ভাষা) শুনে মনে হয়েছে অজ্ঞাত ব্যক্তির বাড়ি ঢাকার আশে-পাশে কোথাও হবে। মণিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাহেরুল ইসলাম বলেন, শিশু পুত্রসহ গৃহবধূ শেফালী কে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022