1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

সুন্দবনের বৃক্ষ নিধন,গাছ পাচারের সাথে সাথে রান্নার জ্বালানিতে ব্যবহার

  • আপডেট: মঙ্গলবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৪
  • ২৯৫ দেখেছেন

20355সুন্দবনের বৃক্ষ নিধন,গাছ পাচারের সাথে সাথে রান্নার জ্বালানিতে ব্যবহার করছে গাছের ফল। বাধাগ্রস্ত হচ্ছে গাছের বংশবিস্তার। উপকূলীয় জনপদের সুন্দরবন সংলগ্ন মানুষেরা বন থেকে জোয়ারের পানিতে ভেসে আসা ফলগুলো সংগ্রহ করে রান্নার জ¦ালানি কাজে ব্যবহার করতে দেখা গেছে। ফল সংগ্রহ কাজে বেশিরভাগ নারীদের দেখা যায়। কয়রা উপজেলার উত্তর বেদকাশী নদী সংলগ্ন কাটকাটা গ্রামের মালতি রাণী,শেফালী রাণী,লতিকাবালাসহ শতাধিক নারীকে গত ১০ অক্টোবর নদীর জোয়ারের পানিতে ভেসে আসা ফল সংগ্রহ করতে দেখা গেছে। ফলগুলো পেকে গাছ থেকে মাটিতে পড়ে যায় এবং গাছের তলায় চারা বের হয়ে বংশ বিস্তার করে । আবার অনেক চারা জোয়ারের পানিতে ভেসে গিয়ে বনের অভ্যন্তরে মাটিতে আটকে গিয়ে  চারা বের হয়ে গাছের বংশবিস্তারে সাহায্য করে গড়ে ওঠে বন।
সুন্দরবনের উদ্ভিদ বড় বৈচিত্রময়। দু বেলা জোয়ারে বন বনানী পানিতে থৈ থৈ করে। সারা বন যেন পানির ওপর ভাসতে থাকে। তবুও চারা গাছের অংকুর উদগম ঘটে,ছোট গাছ বড় হয় এবং সাচ্ছন্দে গাছ বেড়ে ওঠে। কিছু কিছু গাছের ফল-বীজ গাছে থাকা অবস্থায় অংকুর উদগম ঘটে এবং নরম মাটিতে পড়ে পাতা গজিয়ে গাছের বংশবিস্তার করে। ওইসব বীজ অনেক ক্ষেত্রে জোয়ারের পানিতে ভেসে লোকালয়ে চলে আসে,ফল স্থানীয় নারীরা সংগ্রহ করে জ¦ালানি কাজে ব্যবহার করে বাধাগ্রস্ত হয় গাছের বংশবিস্তার। তথ্য অনুসন্ধানে জানা গেছে,৩৩৪টি প্রজাতির ছোট বড় বৃক্ষ,গুল্ম লতা ও পরজীবী উদ্ভিদ পাওয়া যায়। প্রত্যেকের ফল গাছের বংশবিস্তারে সাহায্য করে। এমনিভাবে গাছের ফল রান্নার জ্বালানিতে ব্যবহার করতে থাকলে আগামীতে সুন্দরবন  বৃক্ষশূন্য হয়ে যাবে বলে অভিজ্ঞ মহলের ধারণা। কথা হয় ফল সংগ্রহকারী মিনতি রানীর সাথে, তিনি বলেন,জ্বালানি পাব কোথায় রান্না না করলে খাব কী? । জালানি কিনতে গেলে টাকা লাগে,তাই বনের ফল দিয়ে রান্না করে পেট ভরি। কথা হয় স্থানীয় উত্তর বেদকাশী মধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মাজেদ এর সাথে, তিনি বলেন, জনসচেনতার  অভাবে বনের গাছের ফল জ্বালানি হিসেবে তারা ব্যবহার করছে,বিষয়টি দুঃখজনক। খুলনা রেঞ্জের এসি এফ তৌফিক এলাহী বলেন, জনবলের অভাবে সব দিকে লখ্য রাখা সম্ভব নয়। বিষয়টি দুঃখজনক। তবুও এটি রোধ করার চেষ্টা করা হবে।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022