1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

মণিরামপুরে শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এক মাস ধরে পানিতে নিম্মজিত : বিকল্প ব্যবস্থায় চলছে পাঠদান

  • আপডেট: বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
  • ২৮৬ দেখেছেন

Monirampurবিশেষ প্রতিনিধি ঃ
ভবদহ অঞ্চলের স্থায়ী জলাবদ্ধতার কারনে মনিরামপুরের শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রায় মাস যাবত পানিতে নিম্মজিত রয়েছে। এতে ব্যহত হচ্ছে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম। ক্ষতি পুষিয়ে নিতে প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ বিকল্প পদ্ধতিতে শিক্ষার্থীদের পাঠদানের চেষ্টা চালাচ্ছে।
খোঁজ-খবর নিয়ে জানা যায়, দক্ষিনাঞ্চলের অভিশপ্ত হিসেবে খ্যাত ভবদহ অঞ্চলের স্থায়ী জলাবদ্ধতার কারনে মণিরামপুর উপজেলায় ১০৭ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রায় মাস খানেক যাবত পানিবন্দি হয়ে রয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে কলেজ ৬ টি, মাদরাসা ৮ টি, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৩৬ এবং প্রাথমিক বিদ্যালয় ৫৭ টি। এতে সবচেয়ে বেশী শিক্ষা কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোতে। পানিবন্দি এসব এলাকার কোথাও কোথাও বিকল্প ব্যবস্থায় পাঠদান করানো হচ্ছে। বিশেষ করে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিশুদের শিক্ষা কার্যক্রম কিছুটা পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টায় এ বিকল্প ব্যবস্থায় পাঠদান চালানো হলেও অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সরেজমিন ভবদহ অঞ্চলের মনোহরপুর, কুলটিয়া, দূর্বাডাঙ্গা, শ্যামকুড়, হরিদাসকাটি ও নেহালপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঘুরে দেখা যায় অধিকাংশ বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষে পানি। কোন বিদ্যালয়ে কোমর পানি, কোথাও হাঁটু পানি। মঙ্গলবার উপজেলার কুলটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাজে কুলটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, হাটগাছা মধ্যপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, দূর্বাডাঙ্গা পূর্বপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও হাজীর হাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কোমর পানিতে নিম্মজিত রয়েছে। বাজে কুলটিয়া গ্রামের অভিভাবক মুকুল চন্দ্র মন্ডল জানান, পুরো গ্রামটা মাস খানেক ধরে পানিবন্দি রয়েছে, শিশুরা কিভাবে পড়ালেখা করবে? আশ্রয় কেন্দ্রে থাকা হাসাডাঙ্গা গ্রামের রুহুল আমীন বলেন, কবে পানি সরবে, আর কবে ছেলেপুলেরা স্কুলি যাবে তার কোন ঠিক নেই। হাটগাছা মধ্যপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ভদ্র কান্তি বিশ্বাস বলেন, পানি নামার কোন সম্ভাবনা দেখছি না, কবে শিশুদের নিয়ে বিদ্যালয়ে ফিরতে পারবো বলা যাচ্ছেনা। শিশূদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে রাস্তার উপর পাঠদান করাচ্ছি। উপজেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুল জব্বার জানান, শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম পুষিয়ে নিতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিকল্প ব্যবস্থায় কোথাও রাস্তার উপর, কোথাও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও শিক্ষকের বাড়িতে, কোথাও ভবনের ছাদের উপর আবার কোথাও মন্দিরে পাঠদান চলছে।

 


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022