1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

মণিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বাছাই ! নেতৃবৃন্দ ঢাকা মূখী

  • আপডেট: বুধবার, ১৯ জুলাই, ২০১৭
  • ৩৪২ দেখেছেন

বিশেষ প্রতিনিধি ॥
অবশেষে মণিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন নিয়ে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান হতে চলেছে। যশোর জেলা ও মণিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দকে ঢাকায় ডেকেছেন দলের হাইকমান্ড। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার সাংগঠনিক সমস্যা সমাধান কল্পে আলোচনার মাধ্যেমে কাঙ্খিত সাধারন সম্পাদক পদে নেতার নাম ঘোষনা হতে পারে ঢাকা থেকেই! আর এ কারনেই গত দু’দিন ধরেই ঢাকা মূখী ছুটছেন উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা।
আওয়ামীলীগ দলীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১১ বছর পর বিগত ২০১৪ সালের ২৮ নভেম্বর উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। এদিন স্থানীয় পৌরসভা চত্ত্বরে অনুষ্ঠিত সভায় পৌর মেয়র আলহাজ্ব কাজী মাহমুদুল হাসান নিরুষ্কুশ ভাবে সভাপতি নির্বাচিত হন। সাধারন সম্পাদক পদে প্রয়াত গোলাম মোস্তাফা এবং সাবেক যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন লাভলু বিগত দু’টি কাউন্সিলের ন্যায় আবারও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এবারের সাধারন সম্পাদক নির্বাচনে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ সরাসরি ভোটের দাবি তোলেন। কিন্তু আমজাদ হোসেন লাভলু কেন্দ্রিয় নেতৃবৃন্দের মধ্যস্থতায় গোলাম মোস্তফাকে পুন:ছাড় দিলে তিনি সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন। কাউন্সিলের বছর দেড়েক পর গোলাম মোস্তফা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরন করলে এরপর থেকে আজ পর্যন্ত প্রায় দেড় বছর যাবত পদটি শুণ্য হয়ে থাকে। এসব জটিলতায় আজও পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত হয়নি উপজেলা আওয়ামলীগের। শুধুমাত্র সভাপতি পদ দিয়ে চলে আসছে দলটির কার্যক্রম।
ইতিমধ্যে সাধারন সম্পাদক পদটি হাতে পাওয়ার আশায় বুক বেঁধেছেন অনেকেই। প্রয়াত সাধারন সম্পাদক গোলাম মোস্তফার মৃত্যুর পর তার কনিষ্ট সন্তান জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও সাবেক ছাত্রনেতা প্রভাষক ফারুক হোসেনসহ প্রায় হাফ ডজন নেতা সাধারন সম্পাদক পদের আশায় দৌড়-ঝাঁপ করেছেন কেন্দ্রিয় ও জেলা নেতৃবৃন্দের নিকট। এমনকি সারা জীবনে দলের কোথাও পদ পদবীতে নাম না থাকা ব্যক্তিকেও পোস্টার, ফেসটুন ও সোস্যাল মিডিয়ায় সাধারন সম্পাদক পদের জন্য দোয়া চাইতে দেখা গেছে। তবে সর্বশেষ বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান, সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আমজাদ হোসেন লাভলু এবং সাবেক ছাত্র নেতা ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য প্রভাষক ফারুক হোসেন রয়েছেন আলোচনার শীর্ষে। বৃহস্পতিবার ঢাকায় কেন্দ্রিয় নেতৃবৃন্দ এক বিশেষ সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক পদে নেতা বাছাই করতে পারেন! এমন সংবাদ গত দু-তিন দিন ধরে ছড়িয়ে পড়েছে পৌরশহরসহ উপজেলাব্যাপী। সেই থেকেই ঢাকা গামী হয়েছেন প্রায় অর্ধশত নেতা-কর্মী। ঢাকায় অবস্থানরত মণিরামপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন লাভলু জানান, “বৃহস্পতিবার সকালে কেন্দ্রিয় নেতৃবৃন্দ যশোর জেলা নেতৃবৃন্দ ও উপজেলা সভাপতির সাথে বসবেন, তাদের উপস্থিতিতেই নেতৃবৃন্দ সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।” ঢাকার পথে থাকা মণিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আলহাজ্ব কাজী মাহমুদুল হাসান জানান “মণিরামপুর উপজেলায় দলের সাংগঠনিক সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে আমাদের সাথে আলোচনার জন্য ডেকেছেন হাইকমান্ড। সেখানেই সব কিছু আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত হবে বলে আশা করছি।”


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022