1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

মণিরামপুর থানার ওসিসহ ৮ পুলিশের বিরম্নদ্ধে দায়ের করা হত্যা মামলা প্রত্যাহারের জন্য আদালতে বাদীর লিখিত আবেদন

  • আপডেট: সোমবার, ২৭ অক্টোবর, ২০১৪
  • ৫৮৬ দেখেছেন

মণিরামপুর উপজেলার হাসাডাঙ্গা গ্রামের ওসমান দফাদার (৩৫) কে গুলি করে হত্যার অভিযোগে মণিরামপুর থানার ওসি মোলস্না খবীর আহমেদ, এসআই হিরন্ময়, মাসুম বিলস্নাহ, ফিরোজ আহমেদ, প্রবীর কুমার, এএসআই তৌহিদ এবং কনস্টেবল নজরম্নল ইসলাম ও কনস্টেবল নওয়াব আলীকে আসামী করে আদালতে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের জন্য মামলার বাদী লিখিত আবেদন করেছেন। নিহতের ভাই শের আলী গতকাল সোমবার আদালতে উপস্থিত হয়ে উক্ত লিখিত আবেদন করেন। লিখিত আবেদনে বাদী শের আলী দাবি করেছেন, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের হসত্মÿÿপে এবং কিছু ব্যাক্তির প্রচারণায় নিজের ভূল বুঝতে পেরে উক্ত মামলার আমি আর পরিচালনা করবো না মর্মে সিন্ধামত্ম নিয়েছি। উলেস্নখ্য, বাদীর অভিযোগ ছিল গত ১৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে উপজেলার ফকিররাসত্মা মোড় নামক স্থান থেকে পুলিশ উসমানকে আটক করে এবং ঘটনার রাতে পুলিশ তাকে পার্শ্ববর্তী আমিনপুর গ্রামে মেরে ফেলে রেখে যায়। পরে পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করে। ওসমানকে পুলিশ গুলি করে হত্যা করেছে মর্মে অভিযোগ এনে পরে ওসি মোলস্না খবীর আহমেদসহ ৮ পুলিশের নামে যশোরের আমলী আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। আদালত বাদীর দায়ের করা মামলা আমলে নিয়ে আগামী ১০ নভেম্বর মধ্যে তদমত্ম পূর্বক প্রতিবেদন দাখিল করতে সহকারী পুলিশ সুপার সিআইডি যশোরকে নির্দেশ দেন। উক্ত ঘটনায় পুলিশের দাবী ছিল ওসমানকে আটকের পর তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী অস্ত্র উদ্ধারের জন্য ওসমানকে সাথে নিয়ে আমিনপুর গ্রামে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ওসমানকে ছিনিয়ে নিতে তার সহযোগীরা পুলিশকে লÿ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি চালালে পাল্টা গুলি চালায় পুলিশ। এ ঘটনায় নিহত হয় ওসমান। এদিকে ওসমান আটকের পর এলাকাবাসীর কাছে জানতে চাইলে তারা জানান, ওসমান আগে খারাপ ছিল, এখন আর তা শোনা যায়না। পুলিশের বিরম্নদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের জন্য আবেদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে সংশিস্নষ্ট নির্ভরযোগ্য সূত্র এবং মণিরামপুর থানার ওসি মোলস্না খবীর আহমেদ।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022