1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ? আয়েবাপিসি’র অভিষেক উপলক্ষ্যে মতবিনিময় করতে সাধারন সম্পাদক বকুল খানের লন্ডন সফর মনিরামপুরে ১ কেজি গাঁজাসহ মহিলা কারবারি আটক

মণিরামপুর আ’লীগে নতুন সমীকরন ।। বঞ্চিতদের পাশে আসছেন শাহীন চাকলাদার!

  • আপডেট: শনিবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৪৭৯ দেখেছেন

বিশেষ প্রতিনিধি ।।
মনিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে নতুন সমীকরন শুরু হয়েছে। জেলা সাধারন সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের নেতৃত্বে আসছে বড় ধরনের পরিবর্তণ। স্থানীয় আওয়ামী রাজনীতিতে এমন সুর নতুন করে আশা জাগিয়েছে বিভিন্ন সময়ে রাজপথে নির্যাতিত, বঞ্চিত, ত্যাগী নেতা-কর্মীদের মাঝে। সে লক্ষ্যে বড় ধরনের মিশনে ঢাকায় জোর লবিং শুরু করেছেন নেতৃবৃন্দ।
দলীয় বিশ্বস্থ সূত্রে জানাযায়, বিগত সংসদ নির্বাচনের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা সর্বাত্ম প্রচেষ্টার মাধ্যমে নৌকা মার্কা বিজয়ী করেন। এরপর আওয়ামীলীগ পুনরায় সরকার গঠন করলে তাতে মন্ত্রী সভায় ঠাঁই হয় স্থানীয় সংসদ সদস্যের। স্থানীয় সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য্য স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দ্বায়িত্ব পান। অবশ্য পরবর্তীতে ক্ষমতা কিছুটা হ্রাস করে শুধুমাত্র পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দ্বায়িত্ব দেওয়া হয়। মূলত: মন্ত্রী সভায় স্থান পাওয়ার পরই স্থানীয় রাজনীতিতে দেখা দেয় চরম অসন্তোষ। শুরু হয় প্রকৃত আওয়ামীলীগ দমন নীপিড়ন। বিরোধী দলের নেতৃস্থানীয়দের সরকারের বিভিন্ন কর্মকান্ডে অন্তর্ভূক্তি, সরকারী সুযোগ সুবিধা প্রদান, অরাজনৈতিক ব্যক্তিদের নিজ বলয়ের বহরে ভিড়িয়ে গ্রুপিং করার পাশাপাশি দলীয় নির্যাতিত, ত্যাগী, বঞ্চিত নেতা-কর্মীদের প্রতিপক্ষ বানিয়ে দমন নীপিড়নের অভিযোগ শোনা যায় স্থানীয়দের মুখে মুখে। এমনকি বিরোধীদলের করা মামলায় সাবেক তুখোড় ছাত্রনেতা, যুবলীগ নেতা, একাধিক সাবেক ও বর্তমান জনপ্রনিধিদের পুলিশী হয়রানী এবং জেল হাজতে প্রেরনের মতো কর্মকান্ড শুরু হয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা-কর্মীরা। অল্প সময়ের মধ্যে সে ক্ষোভ দানা বাঁধে নির্যাতিত, নিপীড়িত, বঞ্চিত নেতা-কর্মীদের মাঝে। শুরু হয় প্রতিমন্ত্রী বিরোধী মোর্চা গঠন প্রক্রিয়া।
এক পর্যায়ে বিগত ৩১ আগষ্ট স্বেচ্ছা সেবকলীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী ও সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত খান টিপু সুলতানের দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন লাভলুর সভাপতিত্বে আযোজিত স্মরণ সভায় প্রতিমন্ত্রীর সার্বিক কর্মকান্ডের তীব্র সমালোচনা করেন জেলা ও উপজেলা নের্তৃবৃন্দ। এরপর শুরু হয় তান্ডব। পরদিন পৌরশহরে উভয় পক্ষের মহড়া চলতে থাকে। একপর্যায়ে প্রতিমন্ত্রীর পক্ষের মহড়া থেকে উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিযার সহ-সভাপতি আমজাদ হোসেন লাভলুর গাড়ী ভাংচুর ও স্থানীয় পূবালী ব্যাংকে হামলা চালানো হয়। এসময় তারা আমজাদ হোসেন লাভলুকে লক্ষ্য করে কয়েকটি বোমা বিষ্ফোরন ঘটায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। এতে আরো ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে নেতা-কর্মীরা।
এঘটনার এক প্রতিক্রিয়ায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সাবেকস কেন্দ্রীয় ছাত্রনেতা প্রভাষক ফারুক হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে সাংগঠনিক আলাপকালে আমজাদ হোসেন লাভলুর উপর হামলা চালানো হয়েছে, এটা নিন্দনীয়। এটাকে তিনি দলীয় বিশংখলা সৃষ্টির অপচেষ্টা বলে মনে করেন।
মুলত. এঘটনার পর হতে শুরু হয় নতুন সমীকরণ। প্রতিমন্ত্রী হঠাও মোর্চা সৃষ্টি হয় স্থানীয় ও জেলা নের্তৃবৃন্দের সম্বনয়ে। প্রতিমন্ত্রীর কর্মকান্ড কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ প্রধানমন্ত্রীর কাছে পৌছে দিতে ঢাকায় লবিং শুরু করেছে মোর্চাটি। ইতিমধ্যে অনেকটা কোনঠাসা হয়ে পড়েছে প্রতিমন্ত্রী গ্রুপ। এর নেপথ্যে রয়েছেন একাধিক জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।
নতুন সমীকরণে মণিরামপুর আসনে আগামীতে জেলা সাধারন সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের নাম জোরে সোরে শোনা যাচ্ছে এখন থেকেই । তবে, এবারের সরকার গঠনের মাত্র কয়েক মাসের ব্যবধানে নেতা-কর্মীদের সাথে প্রতিমন্ত্রীর দূরত্ব দু:খজনক উল্লেখ করেছেন একাধিক দলীয় নেতৃবৃন্দ। এ ব্যাপারে জেলার বিশ্বস্থ দলীয় সূত্র জানায়, দলীয় নেতা-কর্মীদের প্রতি প্রতিমন্ত্রীর বৈরী আচরন ও কর্মকান্ডে তীব্র সমালোচনাসহ প্রতিবাদ করতেই শাহীন চাকলাদার মণিরামপুরের নেতা-কর্মীদের বিশেষ দ্বায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022