1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ? আয়েবাপিসি’র অভিষেক উপলক্ষ্যে মতবিনিময় করতে সাধারন সম্পাদক বকুল খানের লন্ডন সফর মনিরামপুরে ১ কেজি গাঁজাসহ মহিলা কারবারি আটক

মণিরামপুরে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যানের ইট ভাটায় হামলা, লুটপাট, ৩টি পৃথক মামলা

  • আপডেট: বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৪৪১ দেখেছেন

বিশেষ প্রতিনিধি ।।
মনিরামপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আমজাদ হোসেন লাভলু, কাউন্সিলর আবদুর রহমান, আজিম হোসেনসহ দলের ৫৯ জনকে আসামি করে পৃথক তিনটি মামলা করা হয়েছে। বুধবার রাতে মনিরামপুর থানায় গাংড়া গ্রামের অসিত দেবনাথ, বিজয়রামপুর গ্রামের আইয়ুব পাটোয়ারী এবং সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন লাভলু বাদী হয়ে মামলাগুলো করে। পৃথক তিনটি মামলায় হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ আনা হয়েছে।
বাদী আমজাদ হোসেন লাভলুর মামলায় দোনারের আজম, আবদুল গণি, তুহিন, বিজয়রামপুরের আইয়ুব, কামালপুরের আবদুল হালিমসহ ২৬ জনকে এজাহারভুক্ত আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়া এ মামলায় অজ্ঞাত আরো রয়েছে ২৪ থেকে ২৫ জন। ইটভাটায় হামলা, ভাংচুর ও মারপিটের অভিযোগ আনা হয়েছে মামলাটিতে। যার ক্ষতির পরিমাণ ২ লক্ষ টাকা বলে দাবী করেছেন।
একই রাতে বিজয়রামপুর গ্রামের আইয়ুব পাটোয়ারী সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন লাভলু, কাউন্সিলর আবদুর রহমান, আবদুল আজিমসহ ১৫ জনকে আসামি করে মামলাটি করে। রাস্তায় আটকিয়ে মারপিট করে জখম করার অভিযোগ আনা হয়েছে এ মামলাতে।
গাংড়া গ্রামের অসিত দেবনাথ একই অভিযোগ তুলে ১৮ জনকে আসামি করে মামলাটি করে। তবে এ মামলাটিতেও কাউন্সিলর আবদুর রহমান ও আজিমকে আসামি করা হয়।
বুধবার রাতে মামলা রেকর্ড করা হলেও পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক জহির রায়হান, তপন কুমার সিংহ এবং আবদুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, মামলার আসামীদের আটকের জোর চেষ্টা চলছে। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক জানান, আওয়ামীলীগর অভ্যন্তরীন কোন্দলে মনিরামপুরের আওয়ামী লীগ দলীয় লোকজন নিজেরা ক্ষতিগ্রস্থের দিকে এগিয়েছে। দলের অভ্যন্তরীন কোন্দলের জের ধরে দলীয় নেতাকর্মীরা হামালা মামলার শিকার হয়ে জেল হাজতেও যাচ্ছেন। যা আগামি দিনের জন্য আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে ভয়াবহ পরিস্থিতি আসছে।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক প্রভাষক ফারুক হোসেন দলীয় অভ্যন্তরীন কোন্দলের জেরে মামলা হয়েছে এ কথা নাকোচ করে তিনি বলেন, পৃথক তিনটি মামলা হয়েছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা করা নিয়ে। যা কোন ক্রমেই কাম্য নয়। মনিরামপুর থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, মামলার পর সবই পলাতক। তাদের আটকের চেষ্টা চলছে।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022