1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল

স্পেনের মুসলিম হত্যাযজ্ঞ ও এপ্রিল ফুল

  • আপডেট: বুধবার, ১ এপ্রিল, ২০২০
  • ১২২৫ দেখেছেন

মনিরুজ্জামান টিটো।।
মুসলমানরা দাবী করে স্পেনে মুসলিমদের পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছিলো এপ্রিলের এক তারিখে। মুসলমানদের বলা হয়েছিলো তারা যদি আত্মসমর্পন করে মসজিদে গিয়ে আশ্রয় নেয় তাহলে তাদের কোন ক্ষতি করা হবে না। এই শুনে সরল বিশ্বাসে মুসলমানরা মসজিদে গিয়ে প্রবেশ করলে খ্রিস্টানরা মসজিদের দরজা বাইরে থেকে আটকে দিয়ে মুসলমানদের জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা করে। যেহেতু মুসলমানদের ধোঁকা দিয়ে বোকা বানিয়ে মারা হয়েছিলো তাই খ্রিস্টানটা এই দিনটাকে ‘এপ্রিল ফুল’ বা এপ্রিলের বোকা হিসেবে আনন্দ করে কাটায়…। গল্পের মধ্যে যে নির্মমতা আছে, মানুষকে পুড়িয়ে মেরে হত্যা করে সেই দিনটিকে আনন্দ করে কাটানোর মধ্যে যে পরিমাণ ঘৃণা জাগ্রত হতে পারে তার সবটাই এই প্রচলিত গল্পে রাখা হয়েছে। অনেকেই বলতে শুনবেন এই এপ্রিলের এক তারিখে স্পেনের রানী ইসাবেলা মুসলমানদের বোকা বানিয়ে পুড়িয়ে মেরেছিলো! আর তোমরা মুসলমানরা সেই দিনটাকে পালন করো এপ্রিল ফুল হিসেবে ছি:…।

আসল ঘটনা হচ্ছে স্পেন থেকে মুসলিম শাসনের অবসান মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবেই ঘটেছিলো। রানী ইসাবেলা (এই প্রখর বুদ্ধিমতী নারীই কলম্বাসকে আমেরিকা আবিস্কার অভিযানে পৃষ্ঠপোষকতা করেছিলেন) স্পেন থেকে মুসলিম শাসন হটাতে আস্তে আস্তে ছোট ছোট অংশ দখল করে নিয়ে এগিয়ে গিয়েছিলেন। মুসলিম শাসন স্পেনে শুরু হয় ৭১১ খ্রিস্টাব্দে। ইসাবেলা ১৪৯২ সালের ২ জানুয়ারী স্পেনের শেষ মুসলিম শাসনের খলিফা দ্বাদশ মোহাম্মদের হাত থেকে শান্তিপূর্ণভাবে নগরের চাবি গ্রহণ করেন। দ্বাদশ মোহাম্মদকে আটক করেও ইসাবালা তাকে ছেড়ে দেন। ইতিহাস থেকে দেখা যাচ্ছে গ্রানাডা হস্তগত হয়েছিলো জানুয়ারির ২ তারিখে। স্পেনের ইতিহাসে কোথাও মসজিদে আটক করে পুড়িয়ে মারার ঘটনার উল্লেখ নেই। আমি পাই নাই।
মুসলমানদের এই পুড়িয়ে মারার গল্পের কোন ঐতিহাসিক প্রমাণ নেই। দ্বিতীয়ত রানী ইসাবেলাকে জড়িয়ে স্পেনের পতনের দিনে (২ জানুয়ারি) মুসলমানদের পুড়িয়ে মারার কথিত এপ্রিলের ১ তারিখের সঙ্গে মেলে না। কারণ জানুয়ারির ২ তারিখ ইসবেলা দ্বাদশ মোহাম্মদের হাত থেকে ক্ষমতা নেন। ইতিহাসে স্পষ্ট করে লেখা আছে, ‘The end of Muslim rule at the heart of Spain came to an end on January 2, 1492 when Boabdil relinquished the keys to the Moorish capital to King Ferdinand and Queen Isabella. বিস্তারিত জানতে পড়ুন এখান থেকে-
‘এপ্রিল ফুল’ আসলে বহু প্রাচীনকাল থেকে চলে আসা একটা উৎসব যা বিবর্তিত হয়ে এসেছে। লন্ডনে একবার এপ্রিল ফুল মানে বোকা বানাতে টাওয়ার অব লন্ডনে শহরবাসীকে গুজব ছড়িয়ে একত্রে জড়া করা হয়েছিলো। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে এটিকে বসন্তের সূচনা হিসেবে আনন্দ ফান করে কাটানোর দিন হিসেবে এক সময় পালিত হত। এই দিনটি কোন মতেই মুসলিম পুড়িয়ে হত্যা করার মত কোন ঘৃণ্য ঘটনার সাক্ষি নয়।

তথ্য: দেবপ্রসাদ কর্মকার পলাশের ব্লগ থেকে


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022