1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাবের ভার্চুয়াল সাধারণ সভা অনুিষ্ঠত : অভিষেকের প্রস্তুতি হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা

সাইপ্রাসে করোনা সংকটে ধরাছোঁয়ার বাইরে অ্যাম্বাসী কর্তৃপক্ষ : উদ্বিগ্ন প্রবাসী বাংলাদেশীরা

  • আপডেট: বুধবার, ২২ এপ্রিল, ২০২০
  • ৪৩৭ দেখেছেন

মোস্তাইন বিল্লাহ, সাইপ্রাস থেকে।।
ইউরোপের ছোট্ট দ্বীপ রাস্ট্র সাইপ্রাসে করোনাভাইরাসের ফলে আজ স্থবির হয়ে পড়েছে জনজীবন। সংকট এবং উদ্বেগের সাথে কাটছে বাংলাদেশী প্রবাসীদের সময়। তবে সরকারের নিয়ন্ত্রিত পদক্ষেপ এবং জনসাধারণের সচেতনতায় সন্তোষজনক পর্যায়ে দিন দিন কমে আসছে করোনাভাইরাস রোগীর সংখ্যা।
আজ ২২ শে এপ্রিল (বুধবার) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগীর সংখ্যা ছয় জন এবং মারা গেছে একজন। মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা সাতশত নব্বইজন। এ পর্যন্ত মোট মারা গেছে তেরজন এবং সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরে গেছেন আটানব্বইজন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় সূত্রে আজ সন্ধায় জানানো হয়েছে যে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছয়জন সনাক্ত করা হয়েছে মোট এক হাজার চারশত একচল্লিশটি পরীক্ষার মাধ্যমে।এবং একজন মারা গেছে ৭৮ বছরের বৃদ্ধ ( পুরুষ)। মোট মারা গেছে তেরজন, এর মধ্যে নয়জন পুরুষ এবং চারজন ছিল মহিলা। এবং মোট আটানব্বইজন সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরে গেছেন।
২১ শে এপ্রিল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল বারজন, ২০শে এপ্রিল ছিল পাচজন এবং ১৯শে এপ্রিল ছিল ছয়জন।আজসহ গত তিনদিনের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা খুবই সন্তোষজনকহারে কমে আসায় জনমনে কিছুটা হলেও সস্তি ফিরে আসছে। উল্লখ্য যে, নয়ই মার্চ এখানে প্রথম করোনাভাইরাস পজিটিভ রোগী সনাক্ত করা হয় এবং প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা মারা গেছে একুশে মার্চ।
নর্থ সাইপ্রাসের স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় সূত্রে জানানো হয়েছে, আজ ছয়শত ছেচল্লিশটি পরীক্ষা করে কোন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা একশত আটজন এবং মোট মারা গেছে চারজন। এখানে দশই মার্চ প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সনাক্ত করা হয়।
এদিকে সাইপ্রাসে বসবাসরত আনুমানিক চার থেকে পাঁচ হাজার সকল প্রবাসীদের দিনকাল কাটছে গভীর সংকটের মধ্যে। ২৩শে মার্চ সন্ধা ছয়টা থেকে দেশটি সম্পুর্নভাবে লকডাউনের ফলে কাজ বন্ধ হয়ে যায়,যার ফলশ্রুতিতে সবাই হয়ে পড়েছে দিশেহারা, বিশেষ করে নতুন আগত স্টুডেন্ট এবং নর্থ সাইপ্রাস থেকে অবৈধভাবে আসা নবাগতরা। অনেকেই খেয়ে না খেয়ে দিন পার করছে। যে সকল প্রবাসী খুবই সমস্যার মধ্যে আছেন, খেতে পারছেন না তাদের পাশে ব্যক্তি পর্যায়ে চলছে সাধ্যমত সীমিত আকারে ত্রাণ বিতরণ। তবে এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশ হাইকমিশন সাইপ্রাসের পক্ষ থেকে কোন প্রকার ত্রাণ বিতরণ বা সহযোগিতার খবর পাওয়া যায়নি।
বাংলাদেশ হাইকমিশন সাইপ্রাসে এ সংকটকালীন মূহুর্তে নয়ই এপ্রিল থেকে চালু করেছে বিশেষ হেল্পলাইন, প্রয়োজনে যোগাযোগ করার জন্য এবং সাইপ্রাস সরকারের বিধিনিষেধ মেনে চলার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়েছে।
মহামারীর এ সংকটকালীন মুহুর্তে সমস্যাগ্রস্ত সাইপ্রাস প্রবাসীরা অপেক্ষায় আছে জরুরী ভিত্তিতে যেন, বাংলাদেশ হাইকমিশন তাদের পাশে দাড়ায়।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022