ঢাকামঙ্গলবার , ৫ মে ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মণিরামপুরে প্রবাসীর পরিবারকে হুমকি, থানায় একাধিক লিখিত অভিযোগ

Tito
মে ৫, ২০২০ ২:১৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

তাজাম্মূল হুসাইন, মণিরামপুর থেকে।।
মণিরামপুরে জমি-জমাকে কেন্দ্র করে প্রবাসী পরিবারকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় উপজেলার খড়িঞ্চী উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত আবুল দফাদারের ছেলে আলাল হোসেন, জালাল হোসেন ও একই গ্রামের মৃত আলতাফ দফাদারের ছেলে হাফিজুর রহমানের নাম উল্লেখ করে থানায় পৃথক দুইটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার খড়িঞ্চী উত্তরপাড়া গ্রামের আব্দুল আলী ও একই গ্রামের নাজমা বেগম বাদী হয়ে পৃথক এ দুটি অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার খড়িঞ্চী গ্রামে আলাল-জালাল বাহিনীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে ভূক্তভোগী এলাকাবাসী। জালালের ভাই হাফিজুরের নেতৃত্বে এলাকায় জুয়া, অর্থ লেনদেন ও জমি জমা বিরোধ মিমাংসার নামে চলে তাদের চাঁদাবাজী। আর এসবের জন্য তাদের প্রধান টার্গেট প্রবাসী ও তাদের পরিবার। কৌশলে নানা ফাঁদে ফেলে অবাধে চালাচ্ছে তাদের কার্যক্রম। প্রতিপক্ষরা প্রভাবশালী হওয়ায় এ বিষয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেও সুফল পাচ্ছে না ভূক্তভোগীরা। বরং উল্টো নানাবিধ হুমকি ও হামলার শিকারসহ যাতায়াতের পথ বন্ধ করে দিয়ে হয়রানী করা হচ্ছে তাদের। পারিবারিক শরিকের জমির যাতায়াতের রাস্তা বের করিয়া দেবে বলিয়া গত ১৫ সালের ডিসেম্বরের দিকে হাফিজুর রহমান ১লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে আব্দুল আলীর কাছে। নিরুপায় হয়ে আব্দুল আলী ৪০ হাজার টাকা প্রদান করিলেও বাকী টাকা না দেওয়ায় উক্ত যাতায়াতের রাস্তা ইটের প্রাচীর দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছে। এরই জের ধরে ভূক্তভোগী আব্দুল আলীর ছেলে প্রবাসী নাজমুল হুসাইন ও শরীফুল ইসলামে বেধড়ক মারপিট করে প্রভাবশালী আলাল হোসেন। সম্প্রতি আলাল হোসেনের বিরুদ্ধে দৈনিক গ্রামের কাগজ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হলে তারই জের ধরে আব্দুল আলীকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এসময় কথার প্রতিবাদ করিলে তার বড় ছেলে প্রবাসী শহীদুল ইসলাম দেশে ফিরে আসলে তাকে মারপিট করিবে বলিয়া জানায়।
এদিকে, বসতবাড়ীর জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে উপজেলা খড়িঞ্চী উত্তরপাড়া গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী আব্দুল মান্নানের স্ত্রী নাজমা খাতুনের সাথে তার ভাইদের মধ্যে শরিকানা জমি নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এ সুযোগে সেখানে হাজির হয় জালাল হোসেন। সে ওই পরিবারকে বাড়ী হতে বের হওয়ার পথ ঘিরে দিয়ে ভূক্তভোগী নাজমা বেগমের মেয়ে সোনিয়া খাতুন খাদিজা ও রিয়া খাতুনকে বেধড়ক মারপিট করে। তারা ক্ষমতাধর প্রভাবশালী হওয়ায় এলাকায় কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। এসব ঘটনা থেকে পরিত্রাণ পেতে আব্দুল আলী ও নাজমা বেগম বাদী হয়ে মণিরামপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
ভূক্তভোগী আব্দুল আলী বলেন, অন্যায়ভাবে জোরপূর্বক আমার জমি দখল করে নিয়েছে। এ থেকে পরিত্রাণ ও শান্তিপূর্ণ বসবাসের জন্য থানায় অভিযোগ করেছি। বর্তমানে আমি এবং আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছি।
নাজমা বেগম বলেন, অভিযোগ করে হুমকির মুখে রয়েছে আমার পরিবার। প্রতিপক্ষ জালালের সাথে দেখা হলেই আমাকে খারাপ ভাষায় গালিগালাজ করে এবং প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।
এবিষয়ে অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
মণিরামপুর থানার ডিউটি অফিসার এএসআই শ্যামল বলেন, পৃথক দুইটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অন্যায়ভাবে কারোর প্রতি জুলুম করতে দেওয়া হবে না। সরেজমিন তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।