ঢাকাশুক্রবার , ২৯ মে ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঝিকরগাছায় সরকারী গাছ কাটার সময় ছাত্রলীগ নেতাসহ ৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ

Tito
মে ২৯, ২০২০ ৫:০৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বিশেষ প্রতিনিধি।।
মহাসড়কের পাশে থাকা সরকারি গাছ প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া অবৈধ ভাবে কাটার অভিযোগ উঠেছে । শুক্রবার (২৯ মে) যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার শংকরপুর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয়দের অভিযোগে ভিত্তিতে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই হিমানীষ ও এএসআই নিয়ামূল ইসলাম একটি টলি, অবৈধভাবে কাটা গাছের গুড়িগুলো জব্দ ও সাইফুজ্জামান রুনা সহ তার সহকর্মী ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ।
তারা বাঁকড়া টু বাগআঁচড়া মহাসড়কের চৌরাস্তা মোড়ের নিকট থেকে বাবলা গাছ কেটে টলি ভর্তি করছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বলেন, হরিদ্রাপোতা গ্রামের জাকিরুল ইসলাম মিন্টু ও শংকরপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহ্বায়ক সাইফুজ্জামান রুনা সহ তার সন্ত্রাস বাহিনী সরেজমিনে উপস্থিত থেকে জোন নিয়ে দিনে দুপুরে সড়কের পাশে থাকা বড় বাবলা গাছগুলো কেটে টলি বোঝায় করছিল। কিন্তু তাদের ভয়ে এলাকাবাসী কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়না। মুখ খুলতেই মারধর হামলা মামলার স্বীকার হতে হয়।
বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ রিপন বালা জানান, শুক্রবার সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাঁকড়া টু বাগআঁচড়া সড়কের মহেশপাড়া চৌরাস্তা মোড়ের পশ্চিম পার্শ্ব দিয়ে শোভাবর্ধনকারী বাবলা গাছ কেটে টলি ভর্তি করে নেয়ার সময় এসআই হিমানিষ বিশ্বাস ও এএসআই নিয়ামুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে গাছ কাটার মূলহোতা হরিদ্রাপাতা গ্রামের শরিফুল ইসলাম বাবুর পুত্র সাইফুজ্জামান রুনা সহ ৮ জনকে আটক করেছে। এসময় পুলিশ একটি টলি ও কাঠ উদ্ধার করে।
এদিকে ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ভেঙ্গেপড়া গাছ রাতের আধারে গাছকাটা চক্র কেটে নিয়ে যাছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।
এদিকে ঘূর্ণিঝড় আম্পানে রাস্তার পাশে ভেঙ্গে পড়া গাছগুলো কোথায় যাচ্ছে? অদৃশ্য শক্তির বলয়ে গাছগুলো ক্রমান্বয়ে চুরি হয়ে যাচ্ছে। কারা চুরি করছে তা সাধারণ মানুষ জানলেও ভয়ে তারা সরাসরি মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না। আবার গভীর রাতেও রাস্তার গাছ কেটে যানবাহনে করে অদৃশ্য স্থানে নিয়ে যাচ্ছে মহলটি। আবার কেউ বলছে, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নির্দেশে গাছ কাঁটার জিম্মাদারির দায়িত্ব পেয়েছে গাছ খেকোরা। আবার উপর মহলের দোহাই ও দায়িত্ব প্রাপ্তির কথা বলে গাছ সরিয়ে বিক্রি করছে গাছ খেকো চক্রটি। সার্বিক এবিষয়ে জেলা পরিষদের কোন তদারকি নেই বল্লেই চলে।
এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন সিকদার জানান, জেলা পরিষদের সাথে কথা হয়েছে তারা আইনআনুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।