1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাবের ভার্চুয়াল সাধারণ সভা অনুিষ্ঠত : অভিষেকের প্রস্তুতি হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা

মনিরামপুর ইউএনও’র বিরুদ্ধে শিবির নিয়ে স্বেচ্ছাসেবী গঠনের অভিযোগ । সমালোচনার ঝড়

  • আপডেট: বুধবার, ২৪ জুন, ২০২০
  • ১৩৪৭ দেখেছেন

মোঃ শাহ জালাল।।
কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণ ও সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য মনিরামপুরের বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান উল্লাহ শরিফ কর্তৃক গঠিত সেচ্ছাসেবক কমিটির কঠোর সমালোচনা করে সোস্যাল মিডিয়াতে স্ট্যাটাস দিয়েছেন আওয়ামীলীগ নেতা জেলা পরিষদের সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম মিলন।
“মনিরামপুর উপজেলা প্রশাসন শিবির ও ছাত্রদল নেতাদের বিভিন্ন ইউনিয়নের করোনা প্রতিরোধ কমিটির স্বেচ্ছাসেবক বানালেন। ছাত্রলীগ কোথায় ?” শিরোনামে তার ব্যাক্তিগত ফেসবুক আইডিতে তিনি স্ট্যাটাসটি আপলোড করেন। এর পরই তার স্ট্যাটাসে আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের কমেন্টের ঝড় বয়ে যায়। সেই সাথে কমেন্টে রিপ্লাই শুরু করে সাবেক ও বর্তমান ছাত্রলীগের নেতারা।
স্ট্যাটাসটির বিভিন্ন কমেন্টে দাবী করা হয়েছে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেচ্ছাসেবক তৈরী করেছেন শিবির ও ছাত্রদল নিয়ে। তেমনি একটি কমেন্টে যা লিখেছেন সাবেক মনিরামপুর ১নং রোহিতা উইনিয়ান ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাবেক যশোর জেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পদক আশরাফুল আলম, তা হুবহ পাঠকের উদ্দেশ্য তুলে ধরা হল:
মনিরামপুর উপজেলা এখন আমলা কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত উপজেলা, যেখানে অধিকাংশ রাজনৈতিক নেতাদের উপেক্ষা করে আমলারা সকল দপ্তর নিজেদের খেয়াল খুশিমত চালাচ্ছে, আর ক্ষমতাসীন দের বৃদ্ধাআঙ্গুলি দেখাচ্ছে। আমি রোহিতা ইউনিয়নে যখন সেচ্ছাসেবক টিম তৈরির প্রথম থেকে এই বিষটা নিয়ে মন্ত্রীর পিএ সজীব কুশারী কে অবহিত করেছিলাম যে, আমার ইউনিয়নে যাকে সেচ্ছাসেবকের প্রধান করা হচ্ছে/হয়েছে সে জামায়তা থেকে জাতীয় নির্বাচন করা দক্ষিণ বঙ্গের সবচেয়ে প্রভাবশালী জমায়াতের নেতা এ্যাডঃ এলামুল হকের আপন ভাতিজা এবং তার পিতা এখনো সক্রিয় আওয়ামী বিরোধী রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত, সে টিমে কাজ করতে চাই করুক কিন্তু নেতৃত্ব টা যেন আওয়ামী মাইন্ডের কোন পারিবারের সন্তান কে দেওয়া হয়। বিষয়টি আমি Uno Manirampur Jashore সাহেব কে জানাবো বলে কয়েক দিন ফোন করেছি কিন্তু রিসিভ হয়নি। বিষয়টি আমাদের ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দেরাও সহজে গ্রহন করেনি। আমাদের ইউপি সচীব দাদা কেউ অবহিত করেছিলাম, ১নং ওয়ার্ড মেম্বার সম্ভবত uno সাহেব কে রোহিতা ইউনিয়ন পরিষদে বিষয়টি বলেছিলেন। যাই হোক আমরা সবাই চাই সকল দপ্তর এবং সামাজিক সংগঠন আওয়ামী প্রেমী লোক দ্বারা পরিচালিত হোক। জয়-বাংলা।
এদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বিরুদ্ধে আ’লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সোস্যাল মিডিয়াতে সমালোচনা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গেছে।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022