1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড – কিন্তু সেচ্ছায় ধর্ষিতার শাস্তি কি ?

  • আপডেট: শুক্রবার, ৯ অক্টোবর, ২০২০
  • ৫১৩ দেখেছেন

মোঃ শাহ্ জালাল।।
আজ দেশ উত্তাল ধর্ষকের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করার দাবিতে। এখন প্রশ্ন হলো, গাল ফ্রেন্ড-বয় ফ্রেন্ড, পরকীয়া প্রেম অথবা স্বামী-স্ত্রী সম্পর্কে অবনতি হলে কি তারা ধর্ষণ মামলা করতে পারবে? ঠিক যেমনটা বর্তমান সময়ে দেখা যাচ্ছে যৌতুকের মিথ্যা মামলা গুলোতে। যৌতুকের অধিকাংশ মামলায় দেখা যায় সংসারে স্বামী-স্ত্রী সম্পর্কে অবনতি বা পরকীয়ার কারণে এই ধরণের মামলা ঘটছে অহরহ। হয়তো আদালতে সত্যের জয় হয়, কিন্তু ততোদিনে মামলার আসামীকে যে ভোগান্তি পোহাতে হয়, তাতে রীতিমতো জীবনের বারটা বেজে যায়। সমাজে থাকে না মান সম্মান।
এছাড়াও আমারা দেখতে পায় স্বেচ্ছায় যে মেয়েরা বয় ফ্রেন্ডের বাসায় কিংবা পার্কে যেয়ে মেলামেশা করছে, তারাই আবার ৭/৮ মাস পর অভিযোগ করছে বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষণ করা হয়েছে। এটাকে কি আমরা স্বেচ্চায় ধর্ষিত হওয়া বলতে পারিনা? আজ হয়তো এদের মতো অনেকেই সরকার প্রধানের পদত্যাগের জন্য মিছিল করছে।
সেচ্ছায় ধর্ষিতা হওয়া একটা মেয়ে ৭/৮ মাস পর প্রতিশোধ নিতে কিংবা বিয়ের দাবীতে ধর্ষণ মামলা করতে পারলেও, একটা ছেলে ১৪ বছর প্রেম করেও বিয়ের দাবীতে মেয়ের বাড়ি পর্ষন্ত যেতে পারেনা। সমাজ তাকে যেতেও দেয় না। এখন প্রশ্ন হলো সেচ্ছায় ধর্ষক ও ধর্ষিতা দু’জনই অপরাধী। তাহলে মামলা করার সুযোগ পাবে ধর্ষিতা, আর সাজা কেন ধর্ষক একা ভোগ করবে ? এই ধরণের অপরাধের জন্য সেচ্ছায় ধর্ষিতাকে আইনে আওতায় এনে সাজা দেওয়া হলে মিথ্যা ধর্ষণ মামলা কিছু টা হলেও কমানো সম্ভব বলে মনে করি। নয়তো বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে সমাজে এই ধর্ষণ মামলা। কারণ এক ধরণের সুযোগ সন্ধানী অপরাধীরা সবসময় সুযোগের অপেক্ষায় থাকেন। তারপরও আমি বলব সমাজে কিছু জানোয়ার আছে তাদের জন্য পুরুষ জাতির দূর্ণাম হয়ে থাকে। প্রতিটি মেয়ে যেমন এক নয় তেমনি প্রতিটি ছেলে এক ধরনের নয়। সবার ভেতর দোষ গুন আছে। আজকে হয়তো আমিও আছি এই ধর্ষকের শাস্তির আন্দোলনে একসাথে। কিন্তু এমন কোন আইন চাই না, যে আইনে অপরাধ আরো বেড়ে যাক। তাই সরকার প্রধানের কাছে অনুরোধ থাকবে ভেবেচিন্তে এমন একটা আইন করা হোক যেটা সমাজে সকলের জন্য মঙ্গল জনক।

লেখক-
গণমাধ্যম কর্মী ও কলামিস্ট


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022