ঢাকারবিবার , ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সারাদেশে গণহারে গ্রেফতার চলছে : মির্জা ফখরুল

admin
ডিসেম্বর ২৮, ২০১৪ ৮:০৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

দেশব্যাপী বিএনপি নেতৃত্বাধীন বিশদলীয় জোটের আজ সোমবারের সকাল-সন্ধ্যা হরতালকে সামনের রেখে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গণহারে গ্রেফতার করছে পুলিশ।’
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রবিবার বিকেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, ‘একদলীয় দুঃশাসন নিশ্চিত করতেই ক্ষমতাসীন অবৈধ সরকার দেশব্যাপী এ গ্রেফতার অভিযান শুরু করেছে। কিন্তু এতে তারা পার পাবে না। অতীতেও কোনো স্বৈরাচার পার পায়নি। এ অবৈধ সরকারও পাবে না। তিনি অভিযোগ করেন, এখন পর্যন্ত পুলিশ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিএনপির দেড় শতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করেছে। এদিকে, নয়াপল্টনে রিজভী আহমেদের সংবাদ সম্মেলন চলাকালে কে বা কারা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে দুটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। আজকের হরতালে সাংবাদিক, এ্যাম্বুলেন্স, ওষুধের দোকান, ফায়ার সার্ভিসের গাড়িসহ জরুরি সেবাপ্রদানকারী সংস্থার গাড়ি আওতামুক্ত থাকবে। এ ছাড়া চট্টগ্রামের লালদিঘী ময়দানে গাউসুল আজম সম্মেলন উপলক্ষে ওই এলাকা হরতালের আওতামুক্ত থাকবে বলে জানান বিএনপির এ যুগ্ম মহাসচিব।
দানবের মতো দেশ চালাচ্ছে সরকার : মির্জা ফখরুল
বিএনপি ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন,দানবের মতো দেশ চালাচ্ছে সরকার। গণতন্ত্রের সব পথই অবরুদ্ধ। তিনি বলেন, বিচার বহির্ভূত প্রতিটি গুম ও খুনের জন্য শেখ হাসিনাকে জনগণের কাছে জবাব দিতে হবে।
গতকাল রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবে সিঙ্গাপুর বিএনপি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, অবৈধ সরকার রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে।মন্ত্রী-এমপিদের দাম্ভিকতা দেখে মনে হচ্ছে তারা এদেশের রাজা। দেশ তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি। তাদের আচরণে প্রমাণিত হচ্ছে গত ৫ জানুয়ারি নির্বাচন একতরফা করতেই তখন বিএনপির শীর্ষ নেতাদের গ্রেফতার করা হয়েছিল। মির্জা ফখরুল বলেন, গুম ও খুন মানবতাবিরোধী অপরাধ আর সে হিসেবে এ সরকারও মানবতাবিরোধী অপরাধের সঙ্গে জড়িত।যারা গুম ও খুনের সঙ্গে জড়িত তাদেরকে শাস্তির আওতায় আনা হবে।গত ৫ জানুয়ারি (বিতর্কিত) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সারাদেশে ৩১০ জনকে হত্যা ও ৬৫ জনকে গুম করা হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।সভায় বর্তমান সরকারের সময়ে গুম ও খুন হওয়া ২২টি পরিবারকে ৫০ হাজার টাকার চেক তুলে দেয় সিঙ্গাপুর বিএনপি। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সিঙ্গাপুর বিএনপি সভাপতি আবদুল কাদের। সরকারের পতন ঘটাতে হবে – রফিকুল ইসলাম মিয়া
বকশীবাজারে খালেদা জিয়ার গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় বিএনপি নেতা-কর্মীদের প্রধান আসামি করা হয়েছে যা অত্যন্ত দু:খজনক। স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র রক্ষা করতে হলে আগামী ২০১৫ সালের মধ্যে সরকারের পতন ঘটাতে হবে বলেও জানান তিনি। গাজীপুরের সমাবেশ সম্পর্কে তিনি বলেন, গাজীপুরে ২০ দলীয় জোটের সমাবেশ সরকার পুলিশ দিয়ে ১৪৪ ধারা জারি করে বন্ধ করেছে। তিনি আরো বলেন, সরকারের অবহেলার কারণে জিহাদের মৃত্যু হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া। রোববার বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত; গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও পেশাজীবী নির্যাতন বন্ধের প্রতিবাদে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, রাজধানীর শাহজাহাপুরের শিশুটির সরকারের অবহেলার কারণে মৃত্যু হয়েছে। কারণ সরকারি সরঞ্জাম থাকা সত্ত্বেও শিশুটিকে উদ্ধার করতে পারেনি।
স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সমালোচনা করে তিনি বলেন, রাত জেগে কাজের তদারকি করেও তিনি ব্যর্থ হয়েছেন। অথচ সরকারি ব্যবস্থাপনা ছাড়া শিশুটিকে উদ্ধার করতে পেরেছে সাধারণ মানুষ। পেশাজীবী পরিষদের রফিকুল আলিম অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন- প্রকৌশলী রিয়াজুল ইসলাম, জাকির হোসেন প্রমুখ। ফখরুলসহ ২৩ জনের চার্জ গঠনের শুনানি ২০ জানুয়ারি শাহজাহানপুরে গাড়ি ভাংচুর মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ২৩ নেতাকর্মীর চার্জ গঠনের শুনানি পিছিয়ে ২০ জানুয়ারি নির্ধারণ করেছেন আদালত। এ মামলার অন্যতম আসামি যুবদল সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল অনুপস্থিত থাকায় এবং আসামি পক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে রোববার মহানগর হাকিম তারেক মাইনুল ইসলাম ভূঁইয়া চার্জ গঠন শুনানির জন্য এ দিন ধার্য করেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।