1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

মাথাগোঁজার ঠাঁই না থাকায় চলন্ত ট্রেনের নিচে আত্মহত্যার চেষ্টা মণিরামপুরের এক বৃদ্ধের

  • আপডেট: মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৫৯৮ দেখেছেন

আবু বক্কার সিদ্দীক, মণিরামপুর থেকে।।
মাথাগোজার ঠাঁই না থাকায় খগেন মন্ডল নামের এক সত্তরোর্ধ বৃদ্ধ চলন্ত ট্রেনের মাথা দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন। এসময় দায়িত্বরত রেলক্রসিংয়ের গেইটম্যান নিতাই অধিকারী দেখতে পেয়ে তাকে রক্ষা করেন। সোমবার সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে যশোর রাজারহাট রেলক্রসিংয়ে এ ঘটনা ঘটে। খগেন মন্ডল মণিরামপুর পৌর এলাকার তাহেরপুর গ্রামের কাইপুত্র-মন্ডল পাড়ার রবিণ তরফদারের জায়গায় কুঁড়েঘর বেঁধে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছেন।
রাজারহাট রেলক্রসিংয়ের গেইটম্যান নিতাই অধিকারী জানান, ঘটনার সময় দ্রুতগামী রকেট এক্সপ্রেস ট্রেন যাওয়ার সময় যশোর-সাতক্ষীরা সড়কের রেলক্রসিংয়ের গেইট বন্ধ করেন। এসময় পাশে দেখতে পান এক ব্যক্তি ট্রেন লাইনে মাথা দিয়ে পড়ে আছে। মুহুর্তের মধ্যে তিনি তাকে ট্রেনলাইনের উপর থেকে টেনে-হিঁচড়ে নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে যান। এরপর এক মিনিটের মধ্যে ট্রেনটি রেলক্রসিং অতিক্রম করে।
গেইটম্যান নিতাই অধিকারী আরো জানান, তিনি মনে করছিলেন ওই অচেনা ব্যক্তি ট্রেন দেখার জন্য এসেছিলেন। পরে তিনি সত্তরোর্ধ ওই ব্যক্তির সাথে কথা বলে জানতে পারেন তার মাথাগোজার ঠাঁই না থাকায় তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছিলেন। পরে সন্ধ্যার দিকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ঘটনাটি পোস্ট করা হলে মুহুর্তেই তা ভাইরাল হয়। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে তাকে পৌরশহরের কাইপুত্র পাড়ায় পৌঁছয়ে দেয়া হয়। ওই পাড়ার রবিণ তরফদার জানান, মাথাগোঁজার ঠাঁই না থাকায় দীর্ঘ ২০/২৫ বছর ধরে খগেন মন্ডল তার জায়গায় বসবাস করে আসছেন। সম্প্রতি রবিণ তরফদার তাদেরকে অনুরোধ করে বলেছেন, অন্যকোন জায়গায় চলে যেতে।
এ ব্যাপারে খগেন মন্ডলের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি অনেকটা ভারসাম্যহীন থাকায় তেমন কিছু বলতে পারেননি। খগেন মন্ডলের স্ত্রী মায়া রাণী মন্ডল বলেন, এর আগেও একবার তার স্বামী আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন। তাদের এক পুত্র ও এক কন্যাসহ ৪ জনের হতদরিদ্র পরিবার। তাদের মাথাগোজার ঠাঁই নেই। একই পাড়ার কৃষ্ণ কুমার বলেন, ভূমিহীন খগেন মন্ডলের মাথাগোঁজার ঠাঁই করে দেয়ার ব্যবস্থা করা হলে পরিবারটি উপকৃত হত।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022