1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল

মণিরামপুরে এবার চোর সন্দেহে মাদরাসা ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা : আটক দুই

  • আপডেট: বুধবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৪৬৪ দেখেছেন

বিশেষ প্রতিনিধি।।
মণিরামপুরে এবার চোর সন্দেহে মামুন হাসান (২২) নামের মণিরামপুর আলিয়া মাদরাসার আলিম দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে মঙলবার সারা রাত হাত পা বেঁধে পেটানোর পর ভোরে তাকে স্থানীয় একটি মসজিদের পাশে ফেলে রাখা হয়। পরদিন বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) পুলিশ সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। একই দিন বিকেলে মণিরামপুর হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। সে মণিরামপুর উপজেলার খোজালিপুর এলাকার মশিয়ার গাজীর ছেলে।
স্থানীয় ইউপি মেম্বর আনিছুর রহমান বলেন, মঙলবার রাত তিনটার দিকে চোর ধরা পড়েছে বলে গ্রামের কয়েকজন আমাকে ডেকে নিয়ে যায় খোজালিপুর গ্রামের আইনালের বাড়িতে। সেখানে যাওয়ার পর মামুনকে বাঁধা অবস্থায় দেখতে পেয়ে তার বাঁধন খুলে দেই। এরপর মামুনের বাড়িতে খবর দেওয়া হলে ভোরে তার মা পুলিশ নিয়ে এসে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে।
তিনি আরোও জানান, প্রায় আট মাস আগে আয়লের একটা মোবাইল ফোন চুরি করে মামুন।
মামুনের মা ছকিনা বেগম বলেন, রাত সাড়ে দশটার দিকে ভাত খেয়ে বাড়ির পাশের দোকানে যায় মামুন। দোকানের পাশে সে আর তার এক বন্ধু পাশ্ববর্তী খোজালিপুর গ্রামের আরমান বসে গল্প করছিলো। এসময় এলাকার কয়েকজন মিলে তাদের দু’জনকে ধরে নিয়ে আয়নালের বাড়িতে হাত পা বেঁধে বেদম মারপিট করে।
পরে আরমান কে ছেড়ে দেয়।
তিনি এসময় অভিযোগ করেন সিরাজ, মামুন, আলমগীর, আয়নাল, আকের, ইউনুস, মুরাদ, ইসরাইল, আকতারুল, মিন্টুসহ আরো অনেকে মেরেছে।
মণিরামপুর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, শুনেছি মামুনকে মারপিট করার ফলে তার মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত দুইজনকে আটক করা হয়েছে। অধিকতর তদন্ত চলছে।
প্রসঙ্গত, মণিরামপুরে মোটরসাইকেল ছিনতাইকারী সন্দেহে সপ্তাহখানেক আগে বোরহান কবির নামে এক কলেজ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। যা নিয়ে এখনও বিভিন্ন সংগঠন আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022