1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল

মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা

  • আপডেট: শনিবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৫১৭৯ দেখেছেন

মণিরামপুর প্রতিনিধি।।
মণিরামপুরের পাতন জুড়ানপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে জৈষ্ঠতা লঙ্ঘন ও পরিপত্রের তোয়াক্কা না করে বিধি বর্হিভুত ভাবে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের অভিযোগ উঠেছে। বিধি বর্হিভুত এ নিয়োগের ঘটনায় আদালতে রিট করায়-বাদী সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাধা প্রদানসহ মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন রকমের হুমকির পাশাপাশি স্কুলের সকল কার্যক্রম থেকে বিরত রাখাসহ অফিস রুমে ঢুকতে না দেয়ার অভিযোগ সদ্য অবৈধ্য নিয়োগকৃত প্রধান শিক্ষক সেলিনা খাতুন ডলির বিরুদ্ধে।
এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মচারী, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এঘটনায় ভুক্তভোগী সহকারী প্রধান শিক্ষক সেলিনা খাতুন উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারসহ সংশ্লিষ্ট দফতরে লিখিত আবেদন করেছেন।
জানা যায়, মণিরামপুর পৌর এলাকার পাতন জুড়ানপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে জৈষ্ঠতা লঙ্ঘন ও পরিপত্রের তোয়াক্কা না করে বিধি বর্হিভুত ভাবে প্রধান শিক্ষক নিয়োগে একজন জুনিয়ার শিক্ষককে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক করে প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ বোর্ড সম্পন্ন করা হয়। এ ঘটনায় ওই বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক জৈষ্ঠতা লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর আবেদন করাসহ ওই নিয়োগ বোর্ড বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন। রিট শুনানী শেষে অভিযোগটি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নিতে মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে আদেশ দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত।
এঘটনার পর থেকেই নিয়ম বর্হিভুত বোর্ডের মাধ্যমে নিয়োগ প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সেলিনা খাতুন ডলি-বাদী সেলিনা খাতুনকে মামলা তুলে নিতে নানা ভাবে হুমকি প্রদান করে আসছেন। মামলা তুলে না নিলে সহকারী প্রধান শিক্ষক সেলিনা খাতুনকে বরখাস্তের হুমকিও দিচ্ছেন। তাছাড়া গত ৭ ডিসেম্বর থেকে সহকারী প্রধান শিক্ষক সেলিনা খাতুনকে নিয়মিত হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করতে বাঁধা দিয়ে চলেছেন এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করাসহ শিক্ষকদের বসার কক্ষে প্রবেশে বাধা প্রদান করছেন।
সহকারী প্রধান শিক্ষককে বিদ্যালয় অফিস ভবনের বাইরে অবস্থান এবং হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করতে না দেওয়ার ঘটনায় বিদ্যালয়ে অন্যান্য শিক্ষক কর্মচারী এবং শিক্ষর্থীদের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে বিদ্যালয়ে শিক্ষা ব্যবস্থায় চরম অস্থিতিশীল অবস্থার মধ্যে পড়তে যাচ্ছে বলে বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষক মন্তব্য করেছেন। এদিকে এ ঘটনায় ভুক্তভোগী সহকারী প্রধান শিক্ষক সেলিনা খাতুন-অব্যহত হুমকি-ধামকি ও হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করতে না দেয়ার বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের নিকট আবেদন করেও কোন ফল না পাওয়ায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসসহ সংশ্লিষ্ট দফতরে অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কবির হোসেন পলাশ জানান, সহকারী প্রধান শিক্ষক সেলিনা খাতুনের একটি অভিযোগ হাতে পেয়েছি, রোববার সরেজমিন বিষয়টি অবগত হয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022