1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাবের ভার্চুয়াল সাধারণ সভা অনুিষ্ঠত : অভিষেকের প্রস্তুতি হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা

মণিরামপুরে পুরাতন সিলেবাসের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিয়ে বিপাকে দুই পরিক্ষাথী

  • আপডেট: মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
  • ৩১৬ দেখেছেন

বিশেষ প্রতিনিধি :
যশোরের মণিরামপুরে পুরাতন সিলেবাসে এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে বিপাকে পড়েছে দুই পরিক্ষাথী। এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ করেছেন পরিক্ষার্থীদের অভিভাবক।
জানা যায়, উপজেলার সুন্দলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী এবারের মানবিক বিভাগ থেকে নিয়মিত পরীক্ষার্থী হিসেবে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। মণিরামপুর সরকারী বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষার প্রথম দিনেই তাদেরকে বাংলা (আবশ্যিক) প্রথম পত্রে পুরাতন সিলেবাসের (২০১৪ সালের) প্রশ্নপত্র সরবরাহ করা হয়। কিন্তু নিয়মিত পরিক্ষার্থী হিসেবে তারা নতুন সিলেবাস অনুযায়ী পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে আসছিলো। পুরাতন প্রশ্নপত্র পাওয়ার পর তারা হতবাক হয়ে পড়ে। সাথে সাথেই তারা কক্ষ পরিদর্শককে বিষয়টি জানালে তিনি যে প্রশ্ন পত্র দেওয়া হয়েছে, তা দিয়েই পরিক্ষা দেওয়ার কথা বলেন বলে পরিক্ষার্থীরা জানায়। পরিক্ষার্থী মুস্তাকীন আহম্মেদ ও লাভলু হোসেন জানান, আমরা নতুন সিলেবাস অনুযায়ী প্রস্তুুতি গ্রহন করে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছি। এ ব্যাপারে লাভলু হোসেনের পিতা ফরিদ উদ্দিন বলেন, কর্তৃপক্ষের ভুলের কারনে আমার ছেলের জীবন থেকে একটি বছর ঝরে গেলো। বিষয়টি আমি লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানিয়েছি। পরীক্ষা কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও মণিরামপুর সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিমলেন্দু বিশ্বাসের মুঠেফোনে যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি। মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুল হাসান জানান, ঘটনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022