1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
হাইকোর্টের নির্দেশে কেশবপুরে অবৈধ “রোমান ব্রিকস” ভেঙ্গে দিল প্রশাসন মাদ্রিদে হবিগঞ্জবাসীর মিলন মেলায় মুখরিত লাভপিয়েছ মণিরামপুরের জুড়ানপুর বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরে বাঁধা মালিতে জাতিসংঘ শান্তিপদক পেলেন বাংলাদেশের ১৩৯ জন শান্তিরক্ষী কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল

স্পেনে করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশীদের পাশে নেই দূতাবাস : প্রবাসীদের মাঝে ক্ষোভ

  • আপডেট: সোমবার, ২০ এপ্রিল, ২০২০
  • ১৭৭৭ দেখেছেন

দবির তালুকদার, মাদ্রিদ থেকে।।
কোভিড ১৯ করোনা ভাইরাসের আক্রমণের শিকার পুরো বিশ্ব, অদৃশ্য এ ভাইরাস পুরো বিশ্বকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে l
ভাইরাসটি প্রতিহত করতে বিশ্বের গবেষণাগার গুলি কার্যকারী কোন ধরনের প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে পারেনি এখনো l
বিশ্বের বড় বড় শক্তিধর দেশগুলির অদৃশ্য অজ্ঞাত এক বাইরাসের কাছে অসহায়। প্রতিদিন মৃত্যুর মিছিলে যোগ হচ্ছেন  হাজার হাজার মানুষ।
টেকনোলজির এযুগে ইউরোপের দেশগুলো যেখানে আবিষ্কারের নতুন নতুন চমক দেখাচ্ছে প্রতিদিন।
অদৃশ্য ভাইরাসটির প্রভাব সেখানে মহামারী সৃষ্টি করে মৃত্যুপুরী শ্মশানে পরিণত করেছি উন্নত দেশগুলোকে।
আক্রমণের শিকার হয়ে মুখ থুবড়ে পড়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশ স্পেন।
গত ১৪ ই মার্চ জল স্থল সকল সীমানা বন্ধ করে লক ডাউন করে দেয়া হয়েছে পুরো দেশ। হোম কোয়ারেন্টাইন আইন জারির পর ঘর বন্ধী দিন কাটাচ্ছেন দেশের সকল নাগরিক। তার সাথে বন্দি হয়ে পড়েছেন স্পেনে বসবাসরত সকল প্রবাসী বাংলাদেশিরা l প্রতিদিন নিজের জীবন যৌবন তিলে তিলে শেষ করে দিয়ে, পরিবার ও দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখেন রেমিটেন্স যোদ্ধা এ সকল প্রবাসী বাংলাদেশী।
স্পেনে ২২ হাজার বৈধভাবে বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশীদের সাথে যুক্ত হয়েছেন আর ও কয়েক হাজার  ইলিগ্যাল বাংলাদেশী। ইলিগ্যাল ভাবে দেশটিতে বসবাস করার কারণে স্পেন সরকার কোন ধরনের সহযোগিতা ও দেখভালের দায়িত্ব নেয়নি।
জীবন ও জীবিকার সন্ধানে প্রতিনিয়ত জীবন সংগ্রামী যুদ্ধা মানুষগুলী আইন অমান্য করে রাস্তায় ব্যবসা করেই নিজের জীবন ও পরিবারের সেবা করে আসছিলেন এতদিন।
ইউরোপে একদিন বৈধভাবে বসবাসের সুযোগ হবে, বৈধতা দেবে দেশটির সরকার,এ আশার সপ্নে বুক বেঁধে করছেন দীর্ঘ অপেক্ষা।
স্পেনে লকডাউন চলছে, রাস্তায় ব্যবসার সুযোগ নেই,
সময়ের কাছে আজ তারা বড় অসহায়,মানবেতর  জীবনযাপন করছেন ঘরে বন্দি হাজার হাজার ইলিগ্যাল বাংলাদেশি।
দেশে পরিবার-পরিজনের দেখভাল করার সামর্থ্য হারিয়ে প্রবাসে বসেই  উদ্বিগ্ন উৎকণ্ঠায় দিন পার করছেন তারা।
একদিকে নিজের জীবন হুমকির মুখে দেশটিতে  প্রতিদিনই বাড়ছে নতুন রোগী ও মৃতের সংখ্যা।
করোনা ভাইরাস রোগাক্রান্ত হয় এপর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন ৩ জন প্রবাসী বাংলাদেশী l আক্রান্ত প্রায় দেড়’শ।
প্রতিদিন যে সকল প্রবাসী বাংলাদেশিরা নিজের পরিবার-পরিজনের সকল চাহিদা পূরণ করতেন,আজ ঘরবন্দী এ সকল প্রবাসীরা খাদ্য সংকট এবং নানাবিধ সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন প্রতিনিয়ত।
এ বিপদে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশীদের পাশে দাঁড়ায়নি স্পেনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস।
স্পেনে চলছে মহামারী, দুর্যোগে স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাস নিশ্চুপ কোনো ভূমিকা নেই। প্রবাসীরা ফোন করলে সঠিক তথ্য মিলছে না তাদের কাছ থেকে।
স্পেনে পর্যন্ত কতজন বাংলাদেশী করোনা ভাইরাস রোগ আক্রান্ত হয়েছেন এ বিষয়ে দুতালয় প্রধান হারুন আল রশিদের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, তাদের কাছেই সঠিক কোনো তথ্য নেই, অসহায় প্রবাসীদের সংকটে তাদের সহযোগিতার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, হাজার হাজার দরখাস্ত পড়েছে বাংলাদেশ এম্বেসী স্পেনের কাছে। এ পরিমাণ টাকা নেই যা দিয়ে সবাইকে সহযোগিতা করা যাবে।
দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর রেদোয়ান আহমেদ ও একই সুরে বলেন, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দকৃত ওয়েস অনার্স এর দশ হাজার ইউরো আছে তা দিয়ে কিছু করা সম্ভব নয়।
দূতাবাস কর্তৃপক্ষ আরোও জানায়, এখন মহামারি চলছে কিছুই করা সম্ভব নয়, করোণা ভাইরাসের আক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসুক তখন দেখা যাবে কিভাবে সহযোগিতা করা যায়। আমরা বাংলাদেশ সরকারের সাথে যোগাযোগ করছি যদি আশ্বাস পাই সবাইকে ফেসবুকে এবং নোটিশের মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে।
বাংলাদেশ এম্বেসী স্পেনের এমন দায়িত্বহীনতা স্পেনে  বাংলাদেশ কমিউনিটির মধ্যে আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে l
তবে, স্পেনে বিভিন্ন প্রদেশে লক ডাউন চলা অবস্থায় অসহায় বাংলাদেশীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশ কমিউনিটি, বাংলিদেশ এসোসিয়েশন, বিভিন্ন আঞ্চলিক সংগঠন ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এবং সমাজের বিত্তবান মানুষ।
এপর্যন্ত অসহায় মানুষের মধ্যে কয়েক দফা ত্রাণ বিতরণ করা হচ্ছে ব্যক্তি উদ্যোগে। রাষ্ট্রের প্রতিনিধিত্বকারী দূতাবাসের সহযোগিতা চেয়ে পর্যন্ত ব্যর্থ হয়ে এসেছেন অনেকেই।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022