1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

মনিরামপুরের অসহায় মমিনেছার পাশে হিন্দু যুব মহাজোট

  • আপডেট: শনিবার, ১ মে, ২০২১
  • ২২০ দেখেছেন

বিশেষ প্রতিনিধি।।
যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলায় ১২ নং শ্যামকুড় ইউনিয়নে অসহায় মমিনেছা (৮৪) পাশে গিয়ে কিছু খাদ্য সামগ্রী ব্যাবস্হা করল মনিরামপুর উপজেলা হিন্দু যুব মহাজোট। মহামারী করোনা ভাইরাসে মনিরামপুর উপজেলা হিন্দু যুব মহাজোটের সাত দিনের ধারাবাহিক কর্মসূচীর আজ শেষ দিনে শ্যামকুড় ইউনিয়নের মৃত দ্বীন আলী সরদারের স্ত্রী হলেন মমিনেছা বিবি তিনি শ্যামকুড় সরদার পাড়া বিল কান্দায় শ্রবন শক্তিহীন একজন বৃদ্ধা।
মমিনেছা বলেন,ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করা আমার স্বামীকে আমি ১৫ বছর আগে হারিয়ে আমি এখন স্বামী পরিত্যক্ত একজন অসহায় মানুষ। আমার ছেলে একজন ভ্যান চালক নুন আনতে পান্তা পুরায় কিছু দিন আগে আমার মেয়ে সাপের কাপড়ে মারা গিয়েছে। কিন্ত ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস আমার বয়স এই ৮৪ বছর কিন্তু আজ আমার টাকার অভাবে একটা বয়স্ক বা বিধবা কার্ড ভাগ্যে জুটলো না।আমি এত অসহায় একজন মানুষ জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের ১০ টাকা চালের কার্ড বা ভিজিডি মত কার্ড আমার পরিবারের কেউ পাই না।আমি খুব অসহায় একজন মানুষ প্রতিদিন তিন বেলা ভাত আমরা খেতে পারি না।
তিনি আরোও বলেন, সরকার নাকি গরীব অসহায় মানুষের ঘর দিচ্ছে অনেক বার আমার ঘরের ছবি তুলে নিয়ে গেল কিন্তু আমার মনে হয় আমার মত একজন অসহায় মানুষের একটা ঘর হলে আমি শেখ হাসিনার জন্য মন খুলে দোয়া করব।আর বয়স্ক বিধবা কার্ড করার জন্য আমার কাছ থেকে জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ও ছবি নেওয়া হয় কিন্তু তিনি বলেন টাহা না দিতে পারলে কার্ড হয় না বাবা। তিনি বার বার কেঁদে কেঁদে বলেন আমার যদি কার্ড না হয় তাহলে আর কারও বয়স্ক বিধবা কার্ড হবে না তাই কেউ যদি একটা কার্ড করে দিতো বেঁচে যেতাম।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022