1. admin@manirampurprotidin.com : admin :
  2. hnurul146@gmail.com : nurul :
  3. titonews24@gmail.com : Tito :
শিরোনাম :
কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মণিরামপুরে সাংবাদিক পুত্র মাহির গোল্ডেন জিপিএ-৫ লাভ মণিরামপুরে ইকবালকে কমিটি গঠন কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ : রোহিতার আহ্বায়ক বহিষ্কার মণিরামপুরে ২দিন ব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন মণিরামপুরে গ্রাম ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্কুল ছাত্রীর হাতে পঁচন ।। আদালতে মামলা মণিরামপুরে সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা বজলুর রহমানের ইন্তেকাল আয়েবাপিসি’র সাধারন সম্পাদক বকুল খানকে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সংগঠনের সংবর্ধনা সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের প্রকাশ্যে ঘুষ গ্রহন মণিরামপুর জুয়েলারী সমিতি পক্ষ থেকে কাউন্সিলর বাবুলাল চৌধুরীকে সংবর্ধনা মণিরামপুরের শীর্ষ ব্যবসায়ী রতন পালের স্ব-পরিবারে ভারত পাড়ি! কিন্তু কেন ?

করোনা আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ১৬৫ জনে

  • আপডেট: মঙ্গলবার, ১৭ মার্চ, ২০২০
  • ২৬৬ দেখেছেন

হোসাইন ইকবাল, স্পেন থেকে।।
মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী কেভিড-১৯ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ১৬৫ জনে।
শুধু ইতালিতেই গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ৩৬৮ জন, যা এ পর্যন্ত একদিনে মৃত্যুর সর্বোচ্চ রেকর্ড।
চীনসহ বিশ্বে ১৫৬ দেশে ছড়িয়ে পড়া এ ভাইরাসে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন এক লাখ ৮২ হাজার ৫৫০ জন। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৭৯ হাজার ৮৮১ জন। (খবর বিবিসি ও রয়টার্সের।)
ইউরোপের দেশগুলো রয়েছে সবচেয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতিতে। চীনের পর এখন ইউরোপ পরিণত হয়েছে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কেন্দ্রস্থলে।
এর মধ্যে ইতালির পরিস্থিতি দিন দিন আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে, দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল।
সেখানে মাত্র ২৪ ঘণ্টায় ৩৬৮ জনের মৃত্যুর ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮০৯ জনে। ইতালিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এর আগে একদিনেই এতসংখ্যক মানুষের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। এ ছাড়া দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২৭ হাজার ৯৮০ জনে পৌঁছেছে।
ইতালির পর আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে স্পেন। সেখানেও পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এখন পর্যন্ত স্পেনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৪২ জনে।
এ ছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ৯৪২ জনে পৌঁছেছে। স্পেনে ১৫ দিনের জন্য ওষুধসহ জরুরি কেনাকাটা বা জরুরি কাজ ছাড়া মানুষকে ঘরের বাইরে বের না হওয়ার জন্য নিষেধ করা হয়েছে।
দেশটির প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজের স্ত্রী বোগোনা গোমেজ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।
এদিকে ফ্রান্সে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ১৪৮ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৬৩৩ জনে।
দেশটিতে ক্যাফে, রেস্টুরেন্ট, সিনেমা হল, শপিংমলসহ বেশিরভাগ দোকানপাট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বিশেষ করে রাতে সব ধরনের চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।
এরই মধ্যে করোনাভাইরাস রুখতে ফ্রান্স, অস্ট্রিয়া ও সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে জার্মানি।
যুক্তরাজ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৫ জনে। এ ছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৫৪৩ জনে পৌঁছেছে। দেশটিতে ৭০ বছরের বেশি বয়সী নাগরিকদের আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।
ইউরোপের সব দেশ থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর ৬ মে পর্যন্ত আমেরিকান এয়ারলাইনসের ৭৫ শতাংশ আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বাতিলের সিদ্ধান্তও নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।
ওয়াশিংটনে হোয়াইট হাউসে আসা সাংবাদিকদের দেহের তাপমাত্রাও পরীক্ষা করা হচ্ছে। এ ছাড়া ভ্রমণের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা ইউরোপের ২৬ দেশের সঙ্গে নতুন করে যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডকে যুক্ত করেছে ট্রাম্প প্রশাসন।
অন্যদিকে করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সুস্থ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।
এদিকে জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ায় সংক্রমণ কমে এলেও দেশগুলোর সরকার জার্মানি, ইতালি, ফ্রান্স, স্পেন, যুক্তরাজ্য ও নেদারল্যান্ডস সফরের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।
নিউজিল্যান্ডের মতো অস্ট্রেলিয়া সরকারও বিদেশি নাগরিকদের ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক সেলফ কোয়ারেন্টাইনে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন করোনা মোকাবেলায় মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠক ডেকেছেন।
ইরানে সরকারি হিসেবে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ৮৫৩ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ হাজার ৯৯১ বলে জানা গেছে। দেশটিতে প্রাণহানির সংখ্যা বাড়তে থাকায় ধর্মীয় স্থানে জমায়েত না হয়ে নাগরিকদের বাড়িতে অবস্থানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
দেশটির পবিত্র কোম নগরীতে ইবাদতের কিছু স্থান বন্ধ করে দেয়া হয়। সীমিত চলাচলের অনুমতি থাকলেও রাজধানী তেহরানে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সব ধরনের নির্মাণকাজ।
করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ইসরাইলেও বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। জনসমাগমস্থল ও রেস্তোরাঁ বন্ধের পাশাপাশি দেশটিতে আংশিক অর্থনৈতিক অচলাবস্থা তৈরি করে রাখা হয়েছে।
ফিলিপাইনে সড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। ম্যানিলায় সবচেয়ে বেশি কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে।


এ খবর টি সোস্যাল মিডিয়াতে এ পোষ্ট করুন

এ জাতীয় আরও খবর




© All rights reserved © 2013-2022